আজ ২৪শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

163822BNP flag

আল-জাজিরার প্রতিবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জাতিসংঘকে তদন্তের আহ্বান বিএনপির

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: গত ১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম আল-জাজিরায় প্রচারিত অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায়ের কতিপয় কর্মকর্তা ও ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে দেশে-বিদেশে তথ্য-প্রমাণসহ নানা দুর্নীতি ও অনিয়মের চিত্র তুলে ধরা হয়েছে দাবি করে এ বিষয়ে জাতিসংঘকে তদন্তের আহ্বান জানিয়েছে বিএনপি।

আজ বুধবার বিএনপির চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলন থেকে এ দাবি করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য প্রফেসর ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, সুনির্দিষ্ট জবাব না দিয়ে রাজনৈতিক বুলির আড়ালে অভিযোগসমূহকে প্রত্যাখ্যান করে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। এমনকি জাতিসংঘের মতো আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানকেও অপরাধ আড়ালের ঢাল হিসেবে ব্যবহার করার হীন প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপিও সরকারের ওইসব বক্তব্যের গ্রহণযোগ্য ও বিশ্বাসযোগ্য ব্যাখ্যার দাবি জানিয়েছিল।

তিনি বলেন, সরকার হাঙ্গেরি থেকে আড়িপাতা যন্ত্রপাতি কেনার কথা ইতিমধ্যেই স্বীকার করেছে। তবে বাংলাদেশের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক নেই এমন একটি দেশ থেকে এসব সরঞ্জামাদি আমদানির ক্ষেত্রে অপকৌশল অবলম্বনের অভিযোগ সম্পর্কে সুস্পষ্ট কোনো গ্রহণযোগ্য ও বিশ্বাসযোগ্য ব্যাখ্যা সরকারি বিবৃতিসমূহে অনুপস্থিত। অথচ বিষয়টি রাষ্ট্রীয় নীতিমালার সাথে সংশ্লিষ্ট একটি গুরুতর অভিযোগ।’

এ বিষয়ে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ‘ইতোমধ্যে সাতটি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা যেমন- (হিউম্যান রাইটস ওয়াচ, ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন ফর হিউম্যান রাইটস, দি এশিয়ান হিউম্যান রাইটস কমিশন, দ্য ওয়ার্ল্ড অ্যাগেইনস্ট টর্চার, দি এশিয়ান ফোরাম ফর হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, রবার্ট এফ কেনেডি হিউম্যান রাইটস এবং ইলিয়স জাস্টিস) এক যৌথ বিবৃতিতে আল-জাজিরার প্রতিবেদনে উল্লিখিত অভিযোগগুলো নিয়ে জাতিসংঘকে নিজের মতো করে তদন্ত এবং শান্তিরক্ষা মিশনের সঙ্গে জড়িত বাংলাদেশি ইউনিট ও ব্যক্তিদের মানবাধিকারের রেকর্ড নতুন করে যাচাই করার আহ্বান জানিয়েছে। নিজ দেশে সংগঠিত কোনো অনিয়ম আড়াল করার জন্য জাতিসংঘকে ব্যবহার না করার জন্য ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে এবং সামগ্রিক পর্যালোচনার আগ পর্যন্ত জাতিসংঘ শান্তি মিশনে বাংলাদেশের অংশগ্রহণ বৃদ্ধি বিষয়ক আলোচনা স্থগিত রাখা উচিত বলেও ওই ৭টি সংগঠন জাতিসংঘকে জানিয়েছে।’