আজ ২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

Screenshot 2020 1028 100810 1

ইরফান ও তার সহযোগীর ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: নৌকর্মকর্তাকে হত্যার চেষ্টায় রাজধানীর ধানমন্ডি থানার মামলায় এমপি হাজী সেলিমের ছেলে ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের সাময়িক বহিষ্কৃত কাউন্সিলর ইরফান সেলিম ও তার দেহরক্ষী জাহিদ ৩ দিনের রিমান্ডে।

 

রিমান্ড শুনানির জন্য আজ বুধবার তাদের ঢাকার কেরানীগঞ্জ কারাগার থেকে তাকে আদালতে আনা হয়। ঢাকার মহানগর হাকিম আদালতে এ রিমান্ড শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

 

ইরাফান ও তার বডিগার্ড মোহাম্মদ জাহিদের জন্য সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। শুনানির শেষে আদালত তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।গত সোমবার (২৬ অক্টোবর) ইরফান সেলিম ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে হত্যার চেষ্টার ধানমন্ডি থানায় মামলা করেন নৌবাহিনীর কর্মকর্তা ওয়াসিফ আহমদ খান।

 

এ মামলার আসামিরা হলেন−ইরফান সেলিম, তার বডিগার্ড মোহাম্মদ জাহিদ, হাজী সেলিমের মদিনা গ্রুপের প্রটোকল অফিসার এবি সিদ্দিক দীপু এবং গাড়িচালক মিজানুর রহমানসহ অজ্ঞাত আরও কয়েক জন।

 

এ মামলায় দীপু তিন দিন ও মিজানুর একদিনের রিমান্ডে রয়েছেন। ২৬শে অক্টোবর মামলা দায়েরের পর দুপুরে র‌্যাব পুরান ঢাকায় চকবাজারে হাজী সেলিমের বাসায় অভিযান চালায়।

 

র‌্যাব হাজী সেলিমের ছেলে ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ইরফান সেলিম ও তার দেহরক্ষী জাহিদকে হেফাজতে নেয়। বাসায় অবৈধভাবে মদ ও ওয়াকিটকি রাখার দায়ে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত তাদের দুই জনকে এক বছর করে কারাদণ্ড দেন।

 

এদিকে, নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় কাউন্সিলর পদ থেকে ইরফান সেলিমকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। মঙ্গলবার, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে।

 

গত ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীকে হারিয়ে জয়ী হন ইরফান। বিদেশে লেখাপড়া করে আসা ইরফান বাবার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মদিনা গ্রুপের পরিচালকদের একজন।