আজ ২৪শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

Screenshot 2020 1024 100205

উত্তেজনার মধ্যে তুরষ্কের এস-৪০০ পরীক্ষা : উদ্বেগ যুক্তরাষ্ট্রের

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনাকে অগ্রাহ্য করে প্রথমবারের মতো রাশিয়ার মিসাইল প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এস-৪০০ পরীক্ষা চালিয়েছে তুরস্ক। বিষয়টি সাংবাদিকদের কাছে শুক্রবার নিশ্চিত করেছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগান।

 

শুক্রবার জুমার নামাজের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে এরদোগান কথা বলেন।এস-৪০০ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা পরীক্ষা চালানোয় যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্কের মধ্যে নতুন করে উত্তেজনা বৃদ্ধি পেতে পারে। যুক্তরাষ্ট্র চায় না যে, তুরস্ক রাশিয়ার তৈরি একই প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ক্রয় করুক।

 

দেশটির অভিযোগ, এর ফলে নেটোর প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার তথ্য বেহাত হতে পারে। গত বছর তুরস্কের কাছে এফ-৩৫ জেট বিক্রি স্থগিত করে ওয়াশিংটন। এছাড়া দেশটির ওপর অবরোধ আরোপেরও হুমকি দেয় যুক্তরাষ্ট্র।

 

রাশিয়ার মিসাইল প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এস-৪০০ পরীক্ষা বিষয়ে এরদোগান বলেন, এটা সত্য যে, আমরা এটার পরীক্ষা চালাব। তারা তাদের কাজ ধারাবাহিকভাবে করবে।

 

তিনি বলেন, ‘আমাদের সক্ষমতা থাকার পরও আমরা কেন পরীক্ষা চালাব না? আমরা অবশ্যই এজন্য আমেরিকার কাছে পরামর্শ চাইব না। আমরা আমেরিকার কাছে এজন্য তো অনুমতি নিতে যাব না। আমরা আমাদের কাজে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ, আমরা আমাদের পথে ধারাবাহিকভাবে চলব।’

 

আরব নিউজ জানায়, কৃষ্ণ সাগরের উপকূলবর্তী তুরস্কের একটি শহর থেকে রাশিয়ার তৈরি এস-৪০০ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার পরীক্ষা চালিয়েছে তুর্কি সেনাবাহিনী।

 

আড়াই বিলিয়ন ডলারে কেনা ওই রুশ সমারাস্ত্রটি গত শুক্রবার পরীক্ষার সময় উপকূলীয় শহর সিনোপ থেকে একটি ধোঁয়ার কুণ্ডলি আকাশের দিকে উড়ে যেতে দেখা যায়।

 

চলতি সপ্তাহে এই ব্যবস্থা পরীক্ষা চালানোর কথা ছিল দেশটির। এর আগে এই পরীক্ষাকে সামনে রেখে কৃষ্ণ সাগরের ওই এলাকায় নৌযান ও বিমান চলাচলে সতর্কতা জারি করে তুরস্ক।এর আগে তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তারা এস-৪০০ পরীক্ষার বিষয়টি অস্বীকার বা স্বীকার কিছুই করবে না।