আজ ৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

Untitled design 2020 11 27T113537.000

ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে নিউজিল্যান্ডের শুভ সূচনা

প্রথমবার্তা প্রতিবেদক,জয় দিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টুয়েন্টি সিরিজ শুরু করলো স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। আজ অকল্যান্ডে প্রথম টি-টুয়েন্টিতে বৃষ্টি আইনে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড ৫ উইকেটে হারিয়েছে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। এই জয়ে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল কিউইরা।

টস ভাগ্যে জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে প্রথমে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় নিউজিল্যান্ড। মারমুখী মেজাজে শুরু করেছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই ওপেনার আন্দ্রে ফ্লেচার ও ব্রান্ডন কিং। মাত্র ২০ বলে স্কোরবোর্ডে উদ্বোধনী জুটিতে ৫৮ রান যোগ করেন তারা।

চতুর্থ ওভারের দ্বিতীয় বলে ফ্লেচারকে শিকার করে নিউজিল্যান্ডকে প্রথম সাফল্য এনে দেন পেসারলোকি ফার্গুসন। ১৪ বলে ৩টি চার ও ২টি ছক্কায় ৩৪ রান করেন ফ্লেচার।

ফ্লেচারের বিদায়ের পর বড় ধরনের বিপদে পড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৫৮ থেকে ৫৯ রানের মধ্যে আরও ৪ উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। অর্থাৎ ১ রানের ব্যবধানে ৫ উইকেটে পতন ঘটে ক্যারিবীয়দের।

এরপর দলকে বিপদমুক্ত করেন অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড ও ফাবিয়ান অ্যালেন। ১৩ দশমিক ৩ ওভার পর্যন্ত ব্যাট করে দলকে ১৪৩ রানে পৌঁছে দেন এ জুটি। তার আগে ১০ম ওভারের পর বৃষ্টির কারনে খেলা বন্ধ হয়ে যায়। যে কারণে ম্যাচের দৈর্ঘ্য ১৬ ওভারে নামিয়ে আনা হয়।

অ্যালেন ২৬ বলে ৩০ রান করে থামলেও, ব্যাট হাতে ঝড় তুলেন পোলার্ড। ৩৭ বলে ৪টি চার ও ৮টি ছক্কায় অপরাজিত ৭৫ রান করেন তিনি। অধিনায়কের দুর্দান্ত ইনিংসের কল্যাণে ১৬ ওভারে ৭ উইকেটে ১৮০ রানের সংগ্রহ পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। নিউজিল্যান্ডের ফার্গুসন ৪ ওভারে ২১ রানে ৫ উইকেট নেন।

১৬ ওভারে ১৭৬ রানের টার্গেটে শুরুটা ভালো হয়নি নিউজিল্যান্ডের। ৩৪ রানে ২ উইকেট হারায় তারা। এরপর ৬৩ রানের মধ্যে আরও ২ উইকেট হারিয়ে লড়াই থেকে অনেকটাই ছিটকে পড়ে নিউজিল্যান্ড।

তবে দলকে লড়াইয়ে ফেরান দক্ষিণ আফ্রিকায় জন্ম গ্রহণকারী ডেভন কনওয়ে। এ ম্যাচ দিয়েই নিউজিল্যান্ডের পক্ষে অভিষেক হয় কনওয়ের। তার সঙ্গী ছিলেন জেমস নিশাম। পঞ্চম উইকেটে ৩৭ বলে ৭৭ রান যোগ করেন কনওয়ে-নিশাম।

কনওয়ে ৫টি চার ও ১টি ছক্কায় ২৯ বলে ২৯ রান করেন। তবে মিচেল স্যান্টনারকে নিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন নিশাম। ২২ বলে অবিচ্ছিন্ন ৩৯ রান তুলে নিউজিল্যান্ডকে জয় এনে দেন নিশাম।

নিশাম ৫টি চার ও ৩টি ছক্কায় ২৪ বলে অপরাজিত ৪৮ রান করেন নিশাম। ৩টি ছক্কায় ১৮ বলে অপরাজিত ৩১ রান করেন স্যান্টনার। ম্যাচ সেরা হয়েছেন ফার্গুসন।

২৯ নভেম্বর মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।