আজ ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

18030501252332

কলাবাগানে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় সুষ্ঠু তদন্ত দাবি

প্রথমবার্তা প্রতিবেদকঃ কলাবাগানে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত, জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়েছে। বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের আয়োজনে বৃহস্পতিবার ধানমন্ডির মাস্টারমাইন্ড স্কুলের সম্মুখে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থী ও স্কুলছাত্রীর পরিবার ৪ দফা দাবি জানিয়েছে। দাবিগুলো হলো- ১. দুর্নীতি ও কালো প্রভাব থেকে মুক্ত দ্রুত বিচারপ্রক্রিয়া, মামলার বিচারকাজ দ্রুত বিচার আইনের আওতায় আনা। ফারদিন ইফতেখার দিহান ও তার সঙ্গীদেরকে দ্রুত ও ন্যায়সঙ্গতভাবে বিচারের আওতায় আনা।

২. সরকারকে অবশ্যই ভিক্টিমের পরিবারকে তদন্ত প্রক্রিয়ায় সব রকম সহায়তা প্রদান করতে হবে। আমরা চাই সকল তদন্ত প্রতিবেদনের স্বচ্ছতা এবং ভিক্টিমের পরিবারকে নিয়মিত এ সংক্রান্ত তথ্য প্রদান করা। একটি স্বচ্ছ ও সঠিকভাবে ডিএনএ পরীক্ষা কার্যকর করা হোক এবং সেই সাথে দিহানের সাথে হাসপাতালে উপস্থিত অপর তিনজনের সংশ্লিষ্টতার ব্যাপারে পূর্ণাঙ্গ তথ্য প্রকাশ করা হোক।

৩. বর্তমান ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন অনুযায়ী, মানহানি ও মিথ্যা তথ্য ছড়ানো, আলোকচিত্র প্রকাশ করা এবং কোনো ব্যক্তিকে অপমান বা হেয় প্রতিপন্ন করার উদ্দেশ্যে মিথ্যা তথ্য প্রচারের সর্বোচ্চ শাস্তি ৩ বছর কারাদন্ড এবং ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা। ভিক্টিমের বয়সের ব্যাপারে যারা মিথ্যা তথ্য ছড়াচ্ছে এবং সেই সাথে ভিক্টিমকে দোষারোপের মাধ্যমে তার চরিত্রহননের চেষ্টা চালাচ্ছে, সাইবার ক্রাইম ইউনিট যেন তাদেরকে শাস্তির আওতায় আনার ব্যবস্থা নেয় তা নিশ্চিত করা।

৪. সরকার কর্তৃক দেশের পথে-ঘাটে নারীর জন্যে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে এবং জনগণকে ইতিবাচক সম্মতি সম্পর্কে শিক্ষাপ্রদানে নিবেদিত হতে হবে।

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সীমা মোসলেম। বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মাসুদা রেহানা বেগম, আন্তর্জাতিক সম্পাদক রেখা সাহা, ঢাকা মহানগর কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক মঞ্জু ধর, লিগ্যাল অ্যাডভোকেসি ও লবি পরিচালক মাকছুদা আক্তার, নির্যাতনের শিকার স্কুল ছাত্রীর পরিবারের পক্ষে তার মা শাহনূরী আমিন ও সহপাঠীবৃন্দ।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তারা বলেন, নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে সহিংসতার শিকার নারীদের পাশে থেকে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ নিয়মিতভাবে কাজ করে যাচ্ছে। রাজধানীর কলাবাগানে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনাটি অত্যন্ত হৃদয়বিদারক এবং মর্মান্তিক। নারীর প্রতি সমাজের নেতিবাচক যে দৃষ্টিভঙ্গি চলমান তার কারণে মেয়েটি এ ঘটনার শিকার হলো।

মানববন্ধনে অন্যান্যদের মধ্যে সংগঠনের ঢাকা মহানগরের লিগ্যাল এইড সম্পাদক শামীমা আফরোজ আইরিন, আন্দোলন সম্পাদক জুয়েলা জেবুন-নেসা খান, আইনজীবি ফাতেমা খাতুন, অ্যাডভোকেসি ও লবি পরিচালক জনা গোস্বামী, সাংবাদিকবৃন্দ এবং সংগঠনের কর্মকর্তাসহ আনুমানিক ১০০ জন উপস্থিত ছিলেন।