আজ ২৩শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

Screenshot 2020 1025 085334

কাবুলে শিক্ষা কেন্দ্রে আত্মঘাতী বোমা হামলা : নিহত অন্তত ১৮

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের একটি শিক্ষা কেন্দ্রের বাইরে আত্মঘাতী হামলায় অন্তত ১৮ জন নিহত ও অপর ৫৭ জন আহত হয়েছে বলে দেশটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, শনিবার সন্ধ্যায় উচ্চ শিক্ষা প্রদানকারী বেসরকারি প্রতিষ্ঠান লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়। দাস্ত-এ বারচি এলাকার ভবনটিতে মূলত শত শত শিয়া মতাবলম্বী শিক্ষার্থী অবস্থান করে থাকে। আহত অনেককে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। হামলাটির দায় তালেবানরা অস্বীকার করেছে। আর এর নেপথ্যে কারা রয়েছে তা এখনও স্পষ্ট নয়। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

কাতারের রাজধানী দোহায় আফগান সরকার ও তালেবান বিদ্রোহীদের মধ্যে শান্তি আলোচনা অব্যাহত থাকলেও সম্প্রতি আফগানিস্তানে সহিংসতা বেড়েছে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তালেবান ও সরকারি বাহিনীর মধ্যে হামলা পাল্টা হামলা চলছে।

শনিবারের হামলা প্রসঙ্গে আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তারিক আরিয়ান জানিয়েছেন, এক আত্মঘাতী হামলাকারী শিক্ষা কেন্দ্রটিতে প্রবেশের চেষ্টা করে।‘ প্রহরিরা তাকে হামলাকারী হিসেবে চিহ্নিত করার পর বিস্ফোরণ ঘটিয়ে দেয় বলেও জানান তিনি।

স্থানীয় বাসিন্দা আলী রেজা জানিয়েছেন, হতাহতদের বেশিরভাগই শিক্ষার্থী। তারা ভবনটিতে প্রবেশের অপেক্ষায় ছিলো। তিনি বলেন, ‘আমি কেন্দ্রটি থেকে একশ’ মিটার দূরে দাঁড়িয়ে ছিলাম হঠাৎ বিশাল বিস্ফোরণে আমি পড়ে যাই।‘

আফগানিস্তানে এর আগেও শিয়া মতালম্বীরা হামলার শিকার হয়েছে। মূলত ইসলামিক স্টেটের মতো সুন্নি মতালম্বী উগ্র ইসলামি গোষ্ঠীগুলো তাদের ওপর হামলা চালিয়ে থাকে।

এছাড়া কাবুলের শিক্ষা কেন্দ্রে হামলা কেন্দ্রে এটিই প্রথম হামলা নয়। এর আগে ২০১৮ সালের আগস্টে কাবুলের একটি টিউশনি কেন্দ্রে হামলা চালালে ৪৮ জন নিহত হয়। তাদের বেশিরভাগই তরুণ। ওই হামলার দায় স্বীকার করে ইসলামিক স্টেট।