আজ ৩রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

171025franch interior minister

গভীর নজরদারির পর ৯ মসজিদ বন্ধ করেছে ফরাসি সরকার

প্রথমবার্তা প্রতিবেদকঃ গত কয়েক সপ্তাহে প্যারিসের একাধিক মসজিদ বন্ধ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেরাল্ড ডারমানিয়ান।

আজ শনিবার (১৫ ডিসেম্বর) ফরাসি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এক টুইট বার্তায় জানান, ‘বিশেষ নজরদারিতে থাকা ফ্রান্সের ১৮ টি মসজিদের ৯ টি মসজিদ ও ইবাদতের স্থান গত কয়েক সপ্তাহে বন্ধ করা হয়েছে। ইসলামী বিচ্ছিন্নতাবাদ প্রতিরোধে আমরা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করছি।’

এর আগে গত ২ ডিসেম্বর ফরাসি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রান্সের ৭৬ টি মসজিদের ওপর নজরদারি করা হচ্ছে বলে জানিয়েছিলেন।

অবশ্য ৯ টি মসজিদ নিরাপত্তা জনিত শর্তাবলি পূরণ না করায় বন্ধ করা হয়েছে বলে জানা যায়। এর অধিকাংশ মসজিদই প্যারিসে অবস্থিত।

দীর্ঘদিন যাবত ফরাসি সরকার ইসলামী বিচ্ছিন্নতাবাদ, মুসলিম সংগঠন ও মসজিদ নিয়ন্ত্রণে আইন প্রণয়নের চেষ্টা করছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ফরাসি ‘প্রজাতন্ত্রের মূল্যবোধের প্রতি শ্রদ্ধা’ নামে একটি খসড়া আইন প্রকাশ করে। আগামী সোমবার তা মন্ত্রীপরিষদে পেশ করা হবে।

এরও আগে ফ্রান্সের ধর্মীয় সম্প্রীতি তৈরি করতে ‘ফ্রেঞ্চ কাউন্সিল ফর ইসলামিক রিলিজিয়ান’ গঠন করা হয়। ইসলাম সংশ্লিষ্ট বক্তব্যগুলোতে চরমপন্থা পরিহার করে প্রজাতন্ত্রের মূল্যবোধ বজায় রাখতে ইসলামী সংগঠনগুলোতে ব্যাপক পরিবর্তন আনার ঘোষণা দেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যানুয়েল ম্যাখোঁ।

গত ১৬ অক্টোবর ‘ইসলাম সঙ্কটে’ রয়েছে বলে প্রকাশ্যে মন্তব্য করেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। সেই সঙ্গে ‘ইসলামী বিচ্ছিন্নতাবাদ’-এর বিরুদ্ধে ব্যাপক অভিযান চালানোর ঘোষণা দিলে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি।

একই সময় শিক্ষার্থীদের মহানবী (সা:)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের জেরে স্যামুয়েল প্যাটি নামে এক শিক্ষককে হত্যা করে এক যুবক। এরপর ফ্রান্স সরকার বিশ্ব নবীর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করে যাবে বলে জানান ম্যাক্রোঁ।

ইসলাম নিয়ে কটাক্ষ এবং মহানবীকে অবমাননার জেরে ম্যাখোঁর বিরুদ্ধে বিশ্বজুড়ে সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়। প্রতিবাদ জানিয়ে বিক্ষোভ করে মুসলিম রাষ্ট্রগুলো। বয়কট করা হয় ফরাসি পণ্য। সূত্র : টিআরটি