আজ ২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১১ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

Screenshot 2020 1029 121841

চেয়ারম্যানের নাক ফাটিয়ে গ্রেফতার চা দোকানি, দোকান পুড়িয়ে দিল বিক্ষুব্ধরা

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার মদাতী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কাদেরকে ঘুষি মেরে নাক ফাটিয়ে দেয়ায় চা বিক্রেতা নেছার উদ্দিনের চায়ের দোকানটি পুড়িয়ে দিয়েছে বিক্ষুব্ধরা। বুধবার বিকালে তার দোকান পুড়িয়ে দেয় চেয়ারম্যান সমর্থক দাবীদার বিক্ষুদ্ধ কিছু লোক। এর আগে চা বিক্রেতা নেছার উদ্দিনের কিল ঘুষিতে নাক ফেটে যায় চেয়ারম্যান আব্দুল কাদেরের। নেছার উদ্দিন মৌজা শাখাতি এলাকার মৃত ছকমল হোসেনের ছেলে।

কালীগঞ্জ থানার ওসি আরজু মো. সাজ্জাদ হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, দীর্ঘদিন থেকে নেছার উদ্দিনের সঙ্গে তার সহোদর ভাই ইয়াকুব আলীর জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। এ ঘটনায় ইয়াকুব আলী মদাতী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে লিখিত অভিযোগ দেন। ইউপি চেয়ারম্যান ওই বিষয়ে সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে ১ লাখ ২০ হাজার টাকায় মীমাংসা করে দেন। বুধবার সেই টাকা পরিশোধের কথা ছিল। কিন্তু নেছার টাকা দেননি। দুপুরে উভয়কে ডেকে আবার সালিশ বৈঠকে বসেন চেয়ারম্যান। এ সময় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ক্ষুব্ধ হয়ে নেছার উদ্দিনসহ তার লোকজন চেয়ারম্যানকে এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি মারতে থাকে। এতে চেয়ারম্যানের নাক ফেটে রক্ত ঝড়তে থাকে। উপস্থিত ইউপি সদস্য ও অন্যরা চেয়ারম্যানকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

এ ঘটনার খবর পেয়ে বিকালে চেয়ারম্যানের সমর্থকরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই চা বিক্রেতা ব্যবসায়ী নেছার উদ্দিনের দোকান পুড়িয়ে দেয়া এবং বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে থাকে।

খবর পেয়ে পরে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রবিউল হাসান ও পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

ওসি আরজু মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, মদাতী ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য আমিনুল হক মোহন বাদী হয়ে নেছার উদ্দিনসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধা প্রদানের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় নেছার উদ্দিনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে তাকে লালমনিরহাট আদালতে উপস্থাপন করা হবে। মামলার অপর আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

কালীগঞ্জের ইউএনও রবিউল হাসান বলেন, ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক ও অনাকাঙ্ক্ষিত। এ ঘটনায় এরই মধ্যে মূল আসামিকে ধরা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করার ব্যবস্থা করা হবে।