আজ ৮ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় পদ পেয়েই পদত্যাগ!
ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় পদ পেয়েই পদত্যাগ!

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় পদ পেয়েই পদত্যাগ!

প্রথমবার্তা প্রতিবেদকঃ কেন্দ্রীয় সদস্য পদ পাওয়ার কয়েক মিনিটের মধ্যেই ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে পদত্যাগ করেছেন মুহিবুর রহমান মুহিব। মুহিব সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। বর্তমান কমিটিতে তিনি সভাপতির পদপ্রত্যাশী ছিলেন।

 

আজ মঙ্গলবার দুপুরে সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করা হয় কেন্দ্র থেকে। কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য চার পদ অনুমোদন দেন।

 

একই সাথে কেন্দ্রীয় সদস্য হিসেবে ৬ জনের নাম উল্লেখ করা হয়। কেন্দ্রীয় সদস্য করা হয় জাওয়াদ ইবনে জাহিদ খান, বিপ্লব কান্তি দাস, মুহিবুর রহমান মুহিব, কনক পাল অরূপ, হোসাইন মোহাম্মদ সাগর ও সঞ্জয় পাশী জয়কে।

 

এই কমিটি ঘোষণার পরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পদ প্রত্যাখান করে স্ট্যাটাস দেন মুহিবুর রহমান মুহিব। স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘আমাকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সদস্য করায় আমি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সম্মানিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমি ব্যক্তিগতভাবে বিশ্বাস করি আমি এই বিশাল পদের যোগ্য নই। তাই আমি স্বেচ্ছায় এই পদ থেকে অব্যাহতি নিলাম।’

 

তার এই কাজ নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে লিখেছেন, ‘শ্রদ্ধাভাজন মুহিবুর রহমান ভাই! উনাকে সবাই একনামে জানে ছাত্রলীগের মুহিব ভাই, আমি ছাত্রলীগের মুহিব ভাইকে ব্যাক্তিগত ভাবে আমার বড় ভাই হিসাবে চিনি। আমার রাজনৈতিক জীবনের নীতিধারক, আমার অনুপ্রেরণা, আমার ভালোবাসার শেষ আশ্রয়স্থল। ভাইয়ের প্রতি আমার শ্রদ্ধা অটুট, ভাইয়ের ভিতরের মুজিব আদর্শের সুপ্ত প্রতিভা গুলো আমাকে করে প্রতিভাবান। আমি রাজপথে ভাইয়ের পিছনে থেকে স্লোগান দিতে চাই, আমি বজ্রকণ্ঠে জয় বাংলার গান শুনতে চাই। পদ দিয়ে কিছু মানুষকে মূল্যায়ন করা যায় না,যাদের করা যায় তাদের ব্যাক্তি পরিচয় নাই৷’