আজ ৯ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

রুনু

টিকা নিয়ে ভালো আছেন নার্স রুনু ভেরোনিকা

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনু ভেরোনিকা কস্তাকে যখন জিজ্ঞেস করা হয়েছিল তিনি করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকা নেবেন কিনা, ‘’হ্যাঁ’’ জবাব দিতে তিনি একদমই সময় নেননি। তবে তখনও তিনি জানতেন না যে তিনিই হবেন বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের টিকা নেয়া প্রথম ব্যক্তি।

বিবিসি বাংলাকে তিনি জানিয়েছেন টিকা নিয়ে ৩০ মিনিট পর্যবেক্ষণে থাকার পরপরই সোজা কাজে ফিরে গেছেন তিনি। রুনু ভেরোনিকা কস্তা বলছিলেন, “যে রোগের চিকিৎসায় এত ঝুঁকি নিয়েছি তার টিকা নেবো না এরকম কীভাবে হয়? আমাকে টিকা দেয়ার পর রাতে একবার ঘুমের মধ্যে বাম দিকে কাত হওয়ার পর হাতে একটু ব্যথা পেলাম তারপর মনে পড়লো আমিতো টিকা নিয়েছি। এর বাইরে টিকা নিয়ে আমার আর কোন অনুভূতি হয়নি। যেমন ছিলাম তেমনই হাসপাতালে কাজ করছি, বিয়ের দাওয়াত খাচ্ছি।”

এই সেবিকা সহ প্রথম দিন ২৬ জনকে টিকা দেয়া হয়। এরপর ঢাকার চারটি হাসপাতালে প্রায় ছয়শ ব্যক্তিকে টিকা দিয়ে সাতদিন ধরে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। টিকা দেয়া হয়েছে ২৭ ও ২৮শে জানুয়ারি দুই দিন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা জানিয়েছেন কুড়ি জনের মতো হালকা সমস্যার কথা জানিয়েছেন। “একজন ধরেন বলেছে মাথা ঘুরাচ্ছে, কারো জ্বর হয়ে আবার নেমেও গেছে, একজন বলেছে তার বমি হয়েছে। খুব বেশি সমস্যা কারো হয়নি। সব টিকাতেই কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া থাকে।”