আজ ৬ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সরকার

দায় সরকারের কোনো অঘটন ঘটলে: খালেদার আইনজীবী

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:  বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশ যাবার অনুমতি না দিয়ে সরকারের ‘এত বড় দায়ভার’ নেওয়া উচিত হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন তার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন। তিনি বলেন, ‘তার (খালেদা জিয়া) বিদেশে চিকিৎসার বিষয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের এ মতামত বেআইনি।

 

খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রে কোনো অঘটন ঘটে গেলে তার দায় সরকারের।’উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নিতে খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম এস্কান্দার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বরবার আবেদন করেছিলেন। আবেদনটির ব্যাপারে মতামতের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ের পাঠানো হয়। রোববার আইন মন্ত্রণালয় জানায়, খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রে কোনো সুযোগ নেই। এর পরিপ্রেক্ষিতে বিকেলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ‘খালেদা জিয়াকে বিদেশে নেওয়ার অনুমতি চেয়ে তার ভাই শামীম এস্কান্দারের আবেদনটি গ্রহণ করতে পারলাম না।’

 

সরকারের এ সিদ্ধান্তের বিষয়ে খালেদা জিয়ার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, ‘এটি সম্পূর্ণ বেআইনি। এ আইনে এমন কোনো বিধান নেই যে কোনো দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি বিদেশে যেতে পারবে না। এ আইন করাই হয়েছে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের জন্য।’তিনি বলেন, ‘চিকিৎসা শেষে ফিরে আসতে হবে-সরকার এই শর্ত দিতে পারত। খালেদা জিয়া তিন বারের প্রধানমন্ত্রী।

 

তার অবস্থা অত্যন্ত জটিল। সরকার মানবিকভাবে দেখতে পারত।’আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, ‘তার (খালেদা জিয়া) চিকিৎসার ব্যাপারে সরকারের নিজেরই উদ্যোগ নেওয়া উচিত। অনুমতি না দিয়ে সরকারের এত বড় দায়ভার নেওয়া উচিত হয়নি। যদি কোনো অঘটন ঘটে যায় তখন সম্পূর্ণ দায়ভার সরকারের ঘাড়ে পড়বে।

 

আইনকে তো মানবিকভাবে ব্যাখ্যা করতে হবে।’খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশ নিতে গত বুধবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কাছে লিখিত আবেদন জমা দেন তার ছোট ভাই শামীম এস্কান্দার।

 

ওইদিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ধানমণ্ডির বাসায় গিয়ে তার সঙ্গে দেখা করেন শামীম এস্কান্দার। আবেদনটি পাওয়ার পরই তা মতামতের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। আইন মন্ত্রণালয়ের মতামতের রোববার ওই আবেদন নাকচ করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।