আজ ৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

173423ASM Rob

ধর্ষণ ও বিচারহীনতার বিরুদ্ধে নারী সমাজের ১১ দফার প্রতি সমর্থন

প্রথমবার্তা প্রতিবেদক: মৃত লাশ ধর্ষণসহ নারী ও শিশু নির্যাতনের ভয়ংকর পরিবেশ আমাদের সমাজকে নিকৃষ্ট পর্যায়ে নিয়ে যাচ্ছে। ধর্ষণ,হত্যা ও নিপীড়নের প্রতিটি ঘটনা বর্বরতাকেও হার মানাচ্ছে।

 

এসব কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়.. এগুলো সমগ্র সমাজ ব্যবস্থার অবক্ষয়ের প্রতিফলন। ধর্ষণ বন্ধে সামাজিক প্রতিরোধ এবং আইনের কার্যকর প্রয়োগ না করে শুধুমাত্র ‘মৃত্যুদণ্ডে’র আইন প্রণয়নের পর  ‘সরকারের নির্লিপ্ততা’ ধর্ষণের আরো বিস্তার ঘটেছে।

 

এই সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক বাস্তবতাকে আমাদের অবশ্যই পরিবর্তন করতে হবে।ধর্ষণসহ নারী ও শিশু হত্যা, নির্যাতন ও বিচারহীনতার বিরুদ্ধে নারী সমাজের ১১ দফা দাবির সমর্থনে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল -জে এস ডি  সভাপতি আ স ম আবদুর রব ও সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট ছানোয়ার হোসেন তালুকদার গণমাধ্যমে এ বিবৃতি প্রদান করেন।

 

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন ক্ষমতাকেন্দ্রিক দুর্বৃত্তপূর্ণ রাজনীতি সমগ্র সমাজকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গেছে। ক্ষমতার আশ্রয়ে ‘ভাগ্য বদল’ এবং অবৈধ, বেআইনি ও নীতিবহির্ভূত কাজের অপরিসীম ক্ষমতা অপ্রয়োগের অধিকার আজকের এই অবস্থার জন্য দায়ী।

 

‘গণতন্ত্রহীনতা’ একটি সমাজ থেকে কিভাবে নীতি-নৈতিকতা, মানবিকতা এবং মূল্যবোধকে অপসারণ করে দেয় তার অন্যতম দৃষ্টান্ত বাংলাদেশ। দুর্নীতি, লুণ্ঠন, হত্যা ও ধর্ষণের সবকিছুর রসদ যোগাচ্ছে গণতন্ত্রহীনতার সংস্কৃতি।

 

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন শুধুমাত্র প্রতিরোধ আন্দোলনের মাধ্যমে নারী সমাজের অধিকার প্রতিষ্ঠা হবে না অর্থাৎ যতক্ষণ পর্যন্ত  ‘জাতীয় সংসদ’সহ ‘প্রশাসনে’র সকল অংশে নারী সমাজের  প্রতিনিধিত্বশীল অংশীদারিত্ব নিশ্চিত না হবে ততক্ষণ পর্যন্ত নারী সমাজের মুক্তি সম্ভব হবে না।

 

বিদ্যমান অপরাজনীতি ও অপসংস্কৃতির বিপরীতে উচ্চতম মানবিক ও নৈতিক সমাজ বিনির্মাণে এবং নারী সমাজের ১১ দফা দাবি বাস্তবায়নে জাতীয় ঐক্যমতের ভিত্তিতে গণজাগরণ ও গণআন্দোলন গড়ে তোলার জন্য দেশবাসীর প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছি।