আজ ২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১১ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

kujm

নরসিংদীতে বাসের ধাক্কায় প্রাইভেটকারের ৪ যাত্রীর মৃত্যু

প্রথমবার্তা প্রতিবেদক:নরসিংদীর বেলাবোতে যাত্রীবাহী বাস ও প্রাইভেটকারের সংঘর্ষে চারজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আরও একজন আহত হয়েছেন। শুক্রবার (১ জানুয়ারি) বিকাল ৫টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদী ও ভৈরবের সীমান্তবর্তী এলাকা দরিকান্দি নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে একজন পুরুষ ও তিনজন নারী রয়েছেন। তারা হলেন- ঢাকা বেইজিং ডাইং অ্যান্ড উইভিং ইন্ডাস্ট্রিজের জেনারেল ম্যানেজার নোয়াব আলী (৫৪), নরসিংদীর পলাশ উপজেলার চলনা গ্রামের খায়রুন্নাহার (৩৫), তার বোন তিষা (২২) ও কামনা (২৪)। নিহত অন্যজন হলেন প্রাইভেটকারের চালক। তবে তাৎক্ষণিকভাবে তার নাম জানা যায়নি।

এ ঘটনায় লুনা বেগম (৩৭) নামের এক নারীকে মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা সিলেটগামী আল মোবারাক (ঢাকা মেট্রো ব-১৫-৭২৩৫) বাসটি নরসিংদীর বেলাবোর দড়িয়াকান্দি নামক স্থানে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা ঢাকাগামী একটি প্রাইভেটকারের (ঢাকা মেট্রো গ-৩১-৭৮৭২) মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে প্রাইভেটকারটি দুমড়ে-মুচড়ে বাসের নিচে চলে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই প্রাইভেটকারের চারযাত্রী নিহত হন। এসময় আরও এক ব্যক্তি গুরুতর আহত হন। তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী কাজল মিয়া বলেন, ‘হঠাৎ বিকট শব্দ হয়। তাকিয়েই দেখি, একটা প্রাইভেটকার একটি বাসের ভেতর ঢুকে যাচ্ছে। প্রথমে চিৎকারের শব্দ শুনতে পেলাম। বাসটি প্রাইভেটকারটিকে নিচে ফেলে রাস্তায় ঘষতে ঘষতে অনেক দূর নিয়ে যায়। পরে এগিয়ে গিয়ে দেখি চারজনই মারা গেছেন।’

ভৈরব হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুনুর রহমান জানান, আল মোবারক যাত্রিবাহী বাসটি প্রাইভেটকারের ওপর উঠে গেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

তিনি বলেন, দুই গাড়িরই প্রচণ্ড গতিতে চলছিল। তাই সংঘর্ষের সঙ্গে সঙ্গে প্রাইভেটকারটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এতে প্রাইভেটকারে থাকা চারজন ঘটনাস্থলেই মারা যান।