আজ ৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

পল্লবী

পল্লবীতে ৬ জনকে হত্যা মামলা: আপিল বিভাগে জামিন পেলেন এক আসামি

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: রাজধানীর পল্লবী আবাসিক এলাকায় এক বাড়িতে ২০০৬ সালে ছয়জনকে হত্যার ঘটনায় করা মামলায় নিম্ন আদালতে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত হলেও হাইকোর্টে খালাসপ্রাপ্ত আসামি এম এ আজিমকে জামিন দিয়েছেন আপিল বিভাগ। প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে আপিল বিভাগ মঙ্গলবার ওই ব্যক্তির জামিন মঞ্জুর করে আদেশ দেন। আসামিপক্ষে আইনজীবী ছিলেন এস এম মাসুদ হোসেন দোলন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ।

 

পল্লবী আবাসিক এলাকায় এক বাড়িতে ২০০৬ সালের ১৩ অক্টোবর রিজিয়া বেগম, খাদিজা, আন্না, তোফেল, মনির ও মিলন বক্সী নামের ছয় ব্যক্তিকে গলা কেটে করে হত্যা করা হয়। ঘটনার পরদিন বাড়ির মালিক কাজী সিরাজুল হক পল্লবী থানায় একটি মামলা করেন। এ মামলায় বাড়ির মালিকের সাবেক গাড়িচালক মাসুম মাতব্বরকে ঘটনার একবছর পর গ্রেপ্তার করা হয়।

 

তার স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে আরো তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এ মামলায় বিচার শেষে ঢাকার দুই নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল ২০০৮ সালের ২৬ অক্টোবর এক রায়ে চারজনকে মৃত্যুদণ্ড দেন। চারজন হলেন-মাসুম মাতব্বর, জাকির হোসেন বাহার, মো. কামরুজ্জামান ওরফে কামরুল এবং এমএ আজিম ওরফে মাসুদ। এ রায় অনুমোদনের জন্য নিম্ন আদালত থেকে হাইকোর্টে ডেথ রেফারেন্স পাঠানো হয়। এছাড়া কারাবন্দি আসামিরা আপিল করেন।

 

উভয় আবেদনের ওপর শুনানি শেষে ২০১৪ সালের ২৭ এপ্রিল হাইকোর্ট রায় দেন। রায়ে তিনজনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ বহাল রেখে আজিমকে খালাস দেন। খালাসের এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার অনুমতি চেয়ে আপিল বিভাগে আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ।

 

এ আবেদনে আজিমের ক্ষেত্রে হাইকোর্টের রায় স্থগিত করেন আপিল বিভাগ। এছাড়া ২০১৬ সালের ২৮ মার্চ আপিল বিভাগ এক আদেশে রাষ্ট্রপক্ষকে আপিল করার অনুমতি দেন। এ অবস্থায় এম এ আজিম জামিন চেয়ে আপিল বিভাগে আবেদন করেন। আদালত শুনানি শেষে আজ জামিন মঞ্জুর করে আদেশ দেন।