আজ ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯শে মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

2

ফিটনেস টেস্টে সর্বোচ্চ স্কোর নিয়ে উত্তীর্ণ সাকিব

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:‌সর্বোচ্চ ১৩ দশমিক ৭ স্কোর নিয়ে ফিটনেস টেস্টে উত্তীর্ণ হয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

আজ বুধবার (১১ নভেম্বর) সকালে এ তথ্য জানান বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ফিটনেস ট্রেইনার। সর্বোচ্চ ১৩ দশমিক ৭ স্কোর নিয়ে ফিটনেস টেস্টে উত্তীর্ণ হয়েছেন সাকিব, যা এখন পর্যন্ত দলের সবার থেকে বেশি। এর আগে ১৩ দশমিক ৬ স্কোর গড়েছিলেন পেসার মেহেদী হাসান।

গত কয়েকদিন ধরেই বিপ টেস্ট দিচ্ছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। নাসির হোসেন, সোহাগ গাজীদের মতো অনেকেই পাস করতে পারেনি। তবে সাকিবের ফিটনেস খুব ভালো অবস্থায় আছে বলে জানিয়েছেন ফিটনেস ট্রেইনার। আর এ কথা না বলার তো কোনো কারণ নেই। সর্বোচ্চ স্কোর নিয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তিনি। এর আগে, আবদুর রাজ্জাক, মোহাম্মদ আশরাফুল, শাহরিয়ার নাফিসরা ১১-এর ওপর স্কোর নিয়ে উতরে গেছেন ফিটনেস টেস্ট।

তিন দফা ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ তথা আইসিসির দুর্নীতি দমন বিভাগকে অবহিত করেননি সাকিব আল হাসান। তাতেই গত অক্টোবরে নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়েছিলেন তিনি। তার বিরুদ্ধে জুয়াড়িদের প্রস্তাব গোপন করার তদন্ত ২০১৮ সালের শেষ দিকে শুরু করেছিল আইসিসি। নিষিদ্ধের খবর জানার পর শেষবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে এসেছিলেন গত বছরের ২৯ অক্টোবর রাতে।

  

এ বছরের ২৯ অক্টোবর শেষ হয়েছে সাকিবের এক বছরের নিষেধাজ্ঞা। করোনা মহামারির শুরু থেকে সাকিব ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রে। করোনার কারণে তিনি একা নন, দুনিয়ার সব ক্রিকেটারই ক্রিকেট থেকে দূরে ছিল। সাকিবের এই প্রবাসের সময়টা একটা কারণে দারুণ কেটেছে। এই সময়ে দ্বিতীয় কন্যার পিতা হয়েছেন। দুই কন্যা আর স্ত্রীকে রেখে সেপ্টেম্বরের শুরুতে দেশে ফিরে এসেছেন। আর সেই মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকেই বিকেএসপিতে শুরু কঠোর অনুশীলন।