আজ ৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৮ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

Screenshot 2020 1028 181551

ফ্রান্সে বিশ্বনবী সা.-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে গওহরডাঙ্গা শিক্ষা বোর্ডের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত কে তলব করে প্রতিবাদ জানাতে হবে-গওহরডাঙ্গার মুফতি উসামা আমীনফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় পৃষ্টপোষকে বিশ^নবী সা.-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড গওহরডাঙ্গা এক প্রতিবাদ মানববন্ধনের আয়োজন করে। মানববন্ধনে নেতৃত্বদেন ছদর সাহেব রহ. এর পৌত্র ও গওহরডাঙ্গা মাদরাসার মুহাদ্দিস মুফতি উসামা আমীন।

 

বক্তব্য রাখেন শিক্ষা বোর্ডের মহাসচিব মাওলানা শামছুল হকসহ শীর্ষ নেতৃবৃন্দ। এতে মাদরাসার শিক্ষক, শিক্ষার্থী, ইমাম, মুয়াজ্জিন সাধারণ তাওহিদি জনতা অংশগ্রহন করেন।

 

মানববন্ধনে মুফতি উসামা আমীন বলেন, বিশ^ নবী সা. জগত বাসীর জন্য রহমাত স্বরুপ আগমন করে ছিলেন। তিনি বিশে^ সব ধরণের অশান্তি দূর করে শান্তি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। হযরত মুহাম্মাদ সা. বিশ^ মুসলিমের জীবনের থেকেও বেশি প্রিয়।

 

রাষ্ট্রীয় পৃষ্টপোষকতায় ফ্রান্স হুজুর সা. ব্যঙ্গচিত্র প্রর্দশন করে যে ধৃষ্টতা দেখিয়েছে তা বিশে^র দুইশ কোটি মুসলমানের হৃদয়ে চরম আঘাত করেছে এবং ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। বাংলাদেশের ধর্মপ্রান মুসলমান প্রতিবাদে রাজপথে নেমে এসেছে। এঘটার জন্য ফ্রান্স কে অবশ্যই বিশ^ মুসলিমের কাছে মাফ চাইতে হবে বলে তিনি দাবী করেন।

 

তিনি আরো বলেন, বাক-স্বাধীনতার নামে ফ্রান্স যে যঘন্য কাজ করেছে তা কোন ভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। বিশে^র দ্বিতীয় মুসলিম অধ্যুষিত দেশ হিসেবে বাংলাদেশ সরকার কে ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত কে তলব করে এর প্রতিবাদ জানাতে হবে। প্রয়োজনে ফ্রন্সের সাথে কুটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার দাবী জানান।

 

সংগঠনের মহাসচিব মাওলানা শামছুল হক বলেন, সালাম রাসূল সা. এর একটি শ^াসত সুন্নাত। সালাম কে জঙ্গিবাদের উপসর্গ বলে ঢাবির ক্রিমিনোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান ড. জিয়া রহমান যে মুর্খ্যতা প্রকাশ করেছেন তাতে তিনি কোন ভাবেই আর ঢাবির শিক্ষক থাকার যোগ্য না অনতি বিলম্বে তাকে ঢাবি থেকে বহিস্কারের দাবি জানান।

 

মুফতি মোহাম্মদ তাসনীন ও মুফতি মাকসূদুল হকের পরিচালনায় অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, গওহরডাঙ্গা মাদরাসার মাওলানা ফরিদ আহমাদ, মুফতি নুরুল ইসলাম, বেফাকের নায়েবে সদর মাওলানা নুরুল হক, মাওলানা মাহমুদুল হাসান,

 

জেলা উলামা পরিষদের সদস্য সচিব মুফতি মঈনুদ্দিন, কোর্ট মসজিদ মাদরাসার মুফতি হাফিজুুর রহমান, তারাইল ফুকরা মাদরাসার মাওলানা শিহাব উদ্দিন, মুসলিম এতিম খানা মাদরাসার মাওলানা হায়াত আলী,

 

মাওলানা নাসির উদ্দিন, মুফতি ফকরুল ইসলাম, তানজিমুল মুদাররিসিন বাংলাদেশের মাওলানা আতাউর রহমান, মাওলানা জামাল উদ্দিন, মাওলানা আব্দুর রাজ্জাক, মাওলানা অহিদুজ্জামান, মাওলানা শফিকুল ইসলাম গওহারী, মাওলানা আব্দুল্লাহ, মাওলানা আবুল ফাতাহ, খাদেমুল ইসলাম ছাত্র শাখার সভাপতি গোলাম রাব্বনী সহ প্রমূখ নেতৃবৃন্দ।