আজ ৮ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’র মারাঠী সংস্করণ
বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’র মারাঠী সংস্করণ

বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’র মারাঠী সংস্করণ

প্রথমবার্তা প্রতিবেদকঃ ভারতের মুম্বাইতে বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশন-এর উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ’অসমাপ্ত আত্মজীবনী’র মারাঠী সংস্করণ ’অপূর্ণ আত্মকথা’র মোড়ক উম্মোচন করা হয়েছে। আজকের আড়ম্বরপূর্ণ এ অনুষ্ঠানে মহারাষ্ট্র রাজ্যের গভর্নর শ্রী ভগৎ সিং কুশিয়ারী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুম্বাই মারাঠী সাংবাদিক সমিতির সভাপতি শ্রী নরেন্দ্র ওয়াবেল, হনারারী কন্সাল জেনারেল গ্রুপের সভাপতি শ্রী ভিজয় কালান্ত্রি এবং দিল্লীস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনের উপ-হাইকমিশনার মো. নুরুল ইসলাম।

 

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ভিডিও বার্তা বড় পর্দায় উপস্থিত অতিথিদের জন্য প্রদর্শন করা হয়। বক্তব্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাতির পিতার আদর্শ আজও আমাদের পররাষ্ট্র নীতির মূল প্রতিপাদ্য বলে উল্লেখ করেন। তিনি আরো বলেন, মারাঠী সংস্করণ ’অপূর্ণ আত্মকথা’র মোড়ক উম্মোচনের মাধ্যমে বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশন মুম্বাই নতুন মাত্রা যোগ করতে সক্ষম হয়েছে। যে ২ ডজন ভাষায় ঐতিহাসিক এ বইটি অনূদিত হয়েছে, তার সাথে এ অঞ্চলের মারাঠী ভাষা যুক্ত হল।

 

মুম্বাইয়ে নিযুক্ত বাংলাদেশের উপ-হাইকমিশনার মো. লুৎফর রহমান তাঁর স্বাগত বক্তব্যে জাতির জনকের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। তিনি বীর মুক্তিযোদ্ধা ও স্বাধীনতার শহীদদেরও শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। এ সময় তিনি ’অপূর্ণ আত্মকথা’ বইটি জাতির পিতার রাজনীতি সম্পর্কে সম্যক জ্ঞান লাভে এবং তাঁর আদর্শ উপলব্ধি করতে মারাঠী ভাষাভাষীদের সহায়তা করবে বলে উল্লেখ করেন। তিনি বাংলাদেশে স্বাধীনতা যুদ্ধে ভারতীয় ওয়ার ভেটেরানদের অবদানের কথাও স্মরণ করেন। দিল্লীস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনের উপ-হাইকমিশনার মো. নুরুল ইসলাম, তাঁর বক্তব্যে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণকারী ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর প্রাক্তন সদস্যদের (ওয়ার ভেটেরানদের) প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। তিনি মারাঠী সংস্করণ ’অপূর্ণ আত্মকথা’র মোড়ক উম্মোচন প্রসঙ্গে বলেন, এর দ্বারা বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে বিদ্যমান সুস্পর্ক আরো সমৃদ্ধ হবে।

 

মহারাষ্ট্র রাজ্যের গভর্নর শ্রী ভগৎ সিং কুশিয়ারী বঙ্গবন্ধুর দূরদর্শী নেতৃত্ব, ধর্মনিরপেক্ষ রাজনীতি ও মানবিকতার আদর্শকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন এবং গভীর প্রশংসা করেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ অনুধাবনের জন্য বইটি গুরুত্বপূণ ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি বাংলাদেশে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ভিডিও বার্তার জন্য তাঁকে ধন্যবাদ জানান এবং অনুপ্রাণিত হয়েছেন বলে উল্লেখ করেন।

 

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয়াংশে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণকারী ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর প্রক্তন সদস্যদের (ওয়ার ভেটেরান) ক্রেস্ট প্রদান এবং মহারাষ্ট্রের ঐতিহ্যবাহী শাল প্রদানের মাধ্যমে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। মুম্বাইস্থ মারাঠী সাংবাদিক সমিতির হলরুমে আয়োজিত অনুষ্ঠানে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ, উপ-হাইকমিশনের কর্মকর্তা ও কর্মচারী, প্রায় ৩০ জন ওয়ার ভেটেরান ও তাঁদের পরিবারের সদস্য, ডিপলোম্যাটিক কোরের সদস্য এবং মুম্বাইয়ে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।