আজ ৬ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বাড়িতে

বাড়িতে টিয়াপাখি এনেছেন? সাবধান!

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: বাড়িতে পশু, পাখি অনেকেই রাখতে পছন্দ করেন৷ কেউ কেউ পাখিদের দিয়ে বিভিন্ন কথা বলানোরও চেষ্টায় থাকেন৷ কিন্তু অনেকেই হয়তো নিচের তথ্যটি জানেন না৷ বাস্তুশাস্ত্রমতে নাকি বাড়ির উত্তর দিকে টিয়ার ছবি রাখলে বাচ্চারা পড়াশোনাতে মনযোগী হয়৷ পাশাপাশি স্মৃতিশক্তিও বৃদ্ধি পায়৷

 

আবার মনে করা হয়, প্রেম, দীর্ঘায়ু, সৌভাগ্যের প্রতীক টিয়া৷ পাশাপাশি বাড়ি থেকে অসুস্থতা, হতাশা, দারিদ্র-অভাব দূর করতে চাইলে টিয়ার মূর্তি বাড়িতে রাখতে পারেন৷

 

স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রেম-ভালোহবাসা আরও বাড়িয়ে তুলতে ফেংশ্যুই অনুযায়ী অনেকে জোড়া টিয়াপাখির মূর্তি এনে রাখেন৷টিয়াপাখির রং-বেরঙের ডানা বাস্তবে পৃথিবী, অগ্নি, জল, কাঠ এবং ধাতুর প্রতীক৷

অনেকে খাঁচায় টিয়াকে বন্দি রাখেন যা একেবারেই করা উচিত নয়৷ ঠিকুজি বিচারের পরই টিয়াকে ঘরে রাখাতে বিশ্বাসী একাংশ৷ কারণ মনে করা হয় টিয়া সবার জন্য সৌভাগ্য বয়ে নাও আনতে পারে৷

 

তবে এসব বিশ্বাস-অবিশ্বাস, তর্ক-বিতর্ক বাদ দিয়ে বহু ব্যবহৃত এবং প্রচলিত বাক্যটি মনে করা যেতেই পারে, বন্যেরা বনে সুন্দর, শিশুরা মাতৃক্রোড়ে৷