আজ ২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

juyo

বিয়ের প্রস্তাবে ‘হ্যাঁ’ বলার মুহূর্তে পা পিছলে পাহাড় থেকে ৬৫০ মিটার নিচে প্রেমিকা

প্রথমবার্তা প্রতিবেদক: সূর্যাস্ত, মুক্ত আকাশ, পাহাড়ের একদম কোনায়, যেখানে চিৎকার করে প্রোপজ করলে উত্তর দেয় পাহাড়। মনোরম দিনে, এমনই এক জায়গা বিয়ের প্রস্তাব দেওয়ার মতো একেবারে যথাযথ। কিন্তু, সবটা মনোরম হবে তখনই, যখন প্রয়োজনীয় সতর্কতা অবলম্বন করা হবে। কারণ বিপদ কখন চলে আসে, কেউ বলতে পারে না।

প্রেমিক ও প্রেমিকা অস্ট্রিয়ার বাসিন্দা। পাহাড়ের নির্জন সেই কোনায় দাঁড়িয়ে মনোরম দৃশ্য দেখার মাঝে প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দেয় প্রেমিক। প্রেমিকার মুখ আনন্দ উচ্ছাসে ভরে ওঠে। চিৎকার করে বলে হ্যাঁ। ঠিক সেই মুহূর্তেই ঘটে যায় বিপদ।

বিপজ্জনক জায়গায় দাঁড়িয়ে পা পিছলে যায় তাঁর। সোজা ৬৫০ মিটার নিচে পড়ে যায় সে। দিশেহারা হয়ে পড়ে প্রেমিক। তাঁকে বাঁচাতে সেও দেয় ঝাঁপ।

প্রেমের গল্পটি এখানেই শেষ হয়না। ভাগ্য তাদের সঙ্গে ছিল। ৩২ বছর বয়সি ওই মহিলা গিয়ে পড়েন বরফের কার্পেটে। বেঁচে যায় সে। জানা গিয়েছে, এই যুগল কারিনাথিয়ার ফালকার্ট পর্বতের উপরে তাদের রোমান্টিক মুহূর্ত কাটাচ্ছিলেন। মাত্র ২৭ বছরের প্রেমিক যখন তাঁর বান্ধবীর কাছে বিয়ের প্রস্তাব রাখে, তখনই খুশিতে মেতে ওঠে প্রেমিকা।

প্রেমিক তার বান্ধবীকে বাঁচাতে এগিয়ে এলেও ৫০ ফুট উঁচুতে আটকে যায় সে। “দু’জন অত্যন্ত ভাগ্যবান বলে জানিয়েছে স্থানীয় পুলিশ। মহিলাটি ২০০ মিটার পাথুরে ভূখণ্ডের ওপরে পড়েছিল।

যদি তুষারপাত না হত তাহলে মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারত। প্রিয়তমাকে বাঁচাতে জীবনের বাজি রাখা ওই প্রমিককে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করার জন্য আসে হেলিকপ্টার। জানা গিয়েছে, হাত ও পা ভেঙে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে তাঁর। তবে প্রেমিকা সুস্থ আছে বলে জানা গিয়েছে।