আজ ২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

1 130

মিশা-জায়েদে অতিষ্ঠ, পদত্যাগ চান বঞ্চিত শিল্পীরা

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:সম্প্রতি প্রযোজক সমিতি ভেঙে যাওয়ায় মিশা জায়েদের ক্ষমতার উৎস নিয়ে চিন্তা করছে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট মহল। পরিচালক সমিতির নেতারাসহ জায়েদ খানের কর্মকাণ্ডে অনেকেই বিরক্তি প্রকাশ করে গণমাধ্যমে বক্তব্য দিয়েছেন।

 

এরই মধ্যে আজ বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছে বঞ্চিত শিল্পীরা। মানববন্ধনে জায়েদ খানকে চলচ্চিত্র থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করে সুস্থ ধারার চলচ্চিত্র রক্ষার দাবি জানিয়েছেন বক্তারা।

 

আজ বুধবার সকাল ১১টার দিকে এই মানববন্ধনে অংশ নেন জাভেদ পাটোয়ারি, সাদিয়া মির্জা, বেবি, পারভীন, ডেঞ্জার নাসিম, লিটনসহ বেশ কয়েকজন চলচ্চিত্রশিল্পী। এদের বেশির ভাগই শিল্পী সমিতির সদস্যপদ হারানো সদস্য।

 

এদের সবারই দাবি, পদ ফিরিয়ে দিতে হবে এবং বর্তমান কমিটির প্রধান মিশা ও জায়েদকে পদত্যাগ করতে হবে।সাদিয়া মির্জা তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘সমিতি থেকে অবিলম্বে বিতর্কিত সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানকে পদত্যাগ করতে হবে।

 

তারা যেটি করেছেন তা অন্যায়। আমাদের সদস্যপদ বাতিল করেছে এই কমিটি। অবিলম্বে এটিও ফিরিয়ে দিতে হবে। না হয় মিশা সওদাগর ও জায়েদ খানকে পদত্যাগ করতে বাধ্য করা হবে।এর আগে একাধিকবার ‘বাধ্য করা হবে’ বললেও।

 

উল্টো জায়েদ খানই বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে আবেদন করে চলচ্চিত্রের প্রযোজক সমিতির কমিটি ভেঙে দিয়েছেন। আর এই বিষয়টি মানতে পারছেন না। মানববন্ধনে জায়েদের ক্ষমতার উৎস নিয়ে প্রশ্ন তোলেন অনেকে।

 

নিজের কাজ প্রসঙ্গে এই শিল্পী জানান, তিনি ছয়টি ছবিতে অভিনয় করেছেন। মুক্তির অপেক্ষায় আছে আরো কয়েকটি সিনেমা। কিন্তু মিশা ও জায়েদ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে সদস্য পদ বাতিল করেছে।

 

উপস্থিত আরো কয়েকজন এমন অভিযোগ করেন। তাদের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ করে আসছেন খল অভিনেতা জামাল পাটোয়ারি, অভিনেতা শান আরাফসহ অনেকে।১৯ জুলাই মিশা-জায়েদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেন শিল্পী সমিতির সদস্যপদ হারানো ১৮৪ সদস্য।

 

এটি হয়েছিল বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএফডিসি) সামনে। পাশাপাশি চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট ১৯টি সংগঠনও তাদের পদত্যাগ দাবি করে আসছে।

 

২০১৭-১৮ সালের শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচনে সমিতির মোট ভোটারসংখ্যা ছিল ৬২৪ জন। মিশা-জায়েদ প্যানেল নির্বাচিত হওয়ার পর এ তালিকা নেমে এসেছে ৪৪০ জনে।