আজ ৩০শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৩ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

Screenshot 2020 1029 131937

মোলাভ ও ভূমিধসে ভিয়েতনামে ২৫ জন নিহত

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: টাইফুন মোলাভের আঘাতের পর মুষলধারে বৃষ্টিতে ভূমিধসে নিখোঁজদের উদ্ধারে শত শত সেনা সদস্য ও ভারী যন্ত্র মোতায়েন করেছে ভিয়েতনাম। এতে এখন পর্যন্ত অন্তত ২৫ জন নিহত হয়েছেন।

কয়েক দশকের মধ্যে দেশটিতে সবচেয়ে শক্তিশালী টাইফুন আঘাত হেনেছে। বুধবার মধ্যাঞ্চলীয় প্রদেশ কুয়াং নামের বিচ্ছিন্ন অঞ্চলগুলোতে এই ঝড় আঘাত হানলে অন্তত ১৩ জন নিহত হন। এছাড়াও ১২ মৎস্যজীবীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, এছাড়াও ৪০ জন নিখোঁজ রয়েছেন। মোলাভের তাণ্ডবে ৫৬ হাজার বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ও লাখ লাখ লোক বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় রয়েছেন।

সরকারি তথ্য বলছে, ঝড়ের চূড়ান্ত পর্যায়ে এসে খারাপ আবহাওয়ার কারণে উদ্ধার চেষ্টা ব্যাহত হচ্ছে।

সাগরে ১২ মৎস্যজীবী নিহত হওয়ার খবর দিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যম। এক বিবৃতিতে উপ-প্রধানমন্ত্রী ট্রিন ডিনহ ডুং বলেন, আমরা কেবল ঝড়ের গতিপথ ও বৃষ্টির পরিমাণ নিয়ে পূর্বাভাস দিতে পারি। কিন্তু কখন ভূমিধস হবে, তা নিয়ে কিছু বলার ক্ষমতা রাখি না।

তিনি আরও জানান, ঘন কাদা ও ভারী বৃষ্টিতে সড়ক ঢেকে গেছে। এখনো অঝোরে বৃষ্টি নামছে। কিন্তু উদ্ধার কার্যক্রম দ্রুততার সঙ্গে সারতে হচ্ছে।

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের খবরে বলা হয়, দুদিন আগে তীরে ফিরতে গিয়ে নৌকাডুবির পর ১২ মৎস্যজীবীর মরদেহ বৃহস্পতিবার উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের খুঁজে বের করতে দুটি নৌযান মোতায়েন করা হয়েছে। এখনো ১৪ জন নিখোঁজ রয়েছেন।

অক্টোবর থেকেই ভিয়েতনামে একের পর ঝড়, ভারী বৃষ্টি ও বন্যা আঘাত হেনে যাচ্ছে। এতে লাখ লাখ লোক আক্রান্ত হয়েছেন।

মোলাভ বুধবার স্থলে উঠে আসার পর থেকে দুর্বল হয়ে একটি ক্রান্তীয় নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকালের দিকে ঝড়টি লাওসে হাজির হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

ভিয়েতনামের আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, শনিবার পর্যন্ত ভিয়েতনামের মধ্যাঞ্চলে ভারি বৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে এবং এ সময় সর্বোচ্চ ৭০০ মিলিমিটার পর্যন্ত বৃষ্টিপাত হতে পারে।