আজ ৯ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

170004kalerkantho pic

শর্ত সাপেক্ষে জেএমআইর রাজ্জাকের জামিন বহাল হাইকোর্টে

প্রথমবার্তা প্রতিবেদকঃ বিভিন্ন সরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিকে নকল এন-৯৫ মাস্ক সরবরাহ করার অভিযোগের মামলায় শর্ত সাপেক্ষে জেএমআইর চেয়ারম্যান আবদুর রাজ্জাকের জামিন বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট। আবদুর রাজ্জাকের বিরুদ্ধে নিম্ন আদালতে মামলার বিচার সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত জামিন দেওয়া হয়েছে।

 

বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীমের হাইকোর্ট বেঞ্চ দুদকের আবেদন খারিজ করে এ আদেশ দেন। নিম্ন আদালত থেকে আবদুর রাজ্জাককে দেওয়া জামিন বাতিল চেয়ে দুদক হাইকোর্টে আবেদন করেছিল।

 

এ আবেদনে জারি করা রুল খারিজ করে আজ আদেশ দেন হাইকোর্ট। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান। আবদুর রাজ্জাকের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট এম কে রহমান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমিন উদ্দিন মানিক।

 

জামিন বহাল রাখার শর্ত হিসেবে বলা হয়েছে, বিচারিক আদালতের অনুমতি ছাড়া দেশের বাইরে যেতে পারবেন না। মামলাটি ছয় মাসের মধ্যে তদন্ত সম্পন্ন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে জামিনের অপব্যবহার করা হলে বিচারিক আদালত জামিন বাতিল করতে পারবে।

 

ঢাকার বিশেষ জজ আদালত গতবছর ১৫ অক্টোবর আবদুর রাজ্জাককে জামিন দেয়। এই জামিন বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে রিভিশন আবেদন করে দুদক। এ আবেদনে আবদুর রাজ্জাকের জামিন কেন বাতিল করা হবে না তা জানতে চেয়ে গতবছর ৩০ নভেম্বর রুল জারি করেন হাইকোর্ট। এই রুলের ওপর শুনানি শেষে রুল খারিজ করে দেওয়া হয়েছে।

 

দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের প্রেক্ষাপটে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষার জন্য ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর গতবছর মার্চে সিএমএসডি ৫০ লাখ এন-৯৫ মাস্ক সরবরাহের দায়িত্ব দেয় জেএমআই হাসপাতাল রিক্যুইজিট ম্যানুফ্যাকচারিং লিমিটেডকে।

 

এরপর জেএমআই বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ২০ হাজার ৬১০টি মাস্ক সরবরাহ করে। কিন্তু এসব মাস্ক নকল বলে ধরা পড়ে। ফলে চিকিৎসক ও নার্সসহ স্বাস্থ্যকর্মীদের জীবন ঝুঁকির মধ্যে পড়ে।

 

এ অবস্থায় দুদক আবদুর রাজ্জাকসহ সাতজনের বিরুদ্ধে দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১ এ গতবছর ২৯ সেপ্টেম্বর মামলা করে। সেদিনই আবদুর রাজ্জাককে সেগুনবাগিচা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।