আজ ৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৮ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

image 197225

শ্বশুরবাড়ির মন জিততে পারেন যেসব নামের মেয়েরা

প্রথমবার্তা প্রতিবেদক:বিয়ে নিয়ে সব মেয়ের মধ্যেই একটা স্বপ্ন থাকে। বিয়ের পর স্বামী, সংসার নতুন মানুষেরা কেমন হবে সেই নিয়ে সবার মধ্যেই একটু চিন্তা তো থাকেই।

 

বাড়ি আর শ্বশুরবাড়ি কখনও এক নয়। নিজের বাড়ি, নিজের চেনা পরিবেশ ছেড়ে, অন্যের বাড়িতে গিয়ে মানিয়ে নিতে হয় তাকে। শুধু তাই নয় বদলে যায় খাদ্যাভাসও। এখন সবাই নিউক্লিয়ার ফ্যামিলিতে মানুষ।

 

বিয়ের পর যদি চারপাশে আরও কিছু আত্মীয়স্বজন থাকেন, অর্থাৎ যদি যৌথ পরিবার হয় সেখানে মানিয়ে নেওয়ার একটা ব্যাপার থাকে। যারা নিজেদের মতো মানুষ তারা যখন যৌথ পরিবারে গিয়ে পড়েন তখন তাদের মনে হয় বুঝি সব প্রাইভেসি নষ্ট হচ্ছে। নতুন জীবন, নতুন সংসারে শান্তি সকলেই চায়। জ্যোতিষ মতে এই ছয় নামের মেয়েরা বিয়ের পর শ্বশুর বাড়িতে খুব সুখে থাকেন।

 

সবার সঙ্গে যেমন মানিয়ে চলতে পারেন তেমনই বাড়ির সুখ-শান্তি কীভাবে বজায় থাকবে সর্বদা সেই চেষ্টাই করেন। শ্বশুর বাড়ির সবার মন জয় করে চলতে পারেন এরা।

 

‘এ’ নামের মেয়েরা

‘এ’ নামের মেয়েরা হয় আত্মবিশ্বাসে ভরপুর। এছাড়াও এদের মধ্যে প্রচুর এনার্জি হাতে। একা হাতে যেকোনো উদ্যোগ নিতে সদাই প্রস্তুত এরা। এরা খুব ভালো মনের মানুষ হন। সব জায়গায় মানিয়েও নিতে পারেন। এছাড়াও এরা খুব সাহসী মনের হন। খুব সহজে কেউ তাদের হার মানাতে পারেন না। আর তাই এরা খুব সুখে শান্তিতে বসবাস করেন।

 

‘ডি’ নামের মেয়েরা

যেসব মেয়ের নামের প্রথম অক্ষর ‘ডি’, তারা খুব পরিশ্রমী। এদের কাজেই চরিত্রের বহিঃপ্রকাশ পায়। এর জন্য আলাদা করে কিছু করতে হয় না। শ্বশুর বাড়ির প্রতি এদের খুবই টান থাকে। আর তাই সব সদস্যই এই নামের মেয়েদের খুব ভালোবাসেন। প্রেম ও সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার জন্য ‘ডি’ নামের মেয়েরা অনেকদূর পর্যন্ত যেতে পারেন।

 

‘এম’ নামের মেয়েরা

মূলত কাজ নিয়েই ব্যস্ত থাকতে ভালোবাসেন এই নামের মেয়েরা। জীবন সম্পর্কে এদের দৃষ্টিভঙ্গি অনেক সহজ সরল হয়। সাধারণত খুব একটা জটিল ভাবে এরা কিছু ভাবেন না। সততা এদের মধ্যে প্রবল, এরা নিজের কাজ ও পরিবারের বন্ধুবান্ধবদের প্রতি যথেষ্ট সৎ। তাই শ্বশুর বাড়িতে সকলের মন সহজেই জয় করে ফেলেন ‘এম’ নামের মেয়েরা।

 

‘এস’ নামের মেয়েরা

যেসব মেয়েদের নাম শুরু হয় ‘এস’ দিয়ে তারা নতুন কিছু করার বিষয়ে খুবই উদ্যোগী থাকেন। একমাত্র ইচ্ছে শক্তির সাহায্যেই এরা সবরকম বাধা বিপত্তিকে জয় করে ফেলতে পারেন। বিয়ে করার ক্ষেত্রেও এই মেয়েরা খুবই নির্ভরযোগ্য। স্ত্রী বা প্রেমিকা হিসেবেও বিশ্বস্ত হন এরা। ফলে শ্বশুর বাড়িতে সবাইকে সঙ্গে নিয়ে সুখেই দিন কাটে তাদের।

 

‘পি’ নামের মেয়েরা

‘পি’ নামের মেয়েরা খবুই জ্ঞানী হন। যেকোনো বিষয়ে তাদের শেখার ইচ্ছে প্রবল। যেকোনো বিষয়ে তারা ঠাণ্ডা মাথায় ভেবে শান্তিতে কাজ করেন। নিজের সমস্ত রকমের বুদ্ধি দিয়ে এরা বিষয়গুলোর বিচার বিবেচনা করেন। যার ফলে শ্বশুর বাড়িতে কোন রকম ঝামেলায় পড়তে হয় না তাদের। নিজের মতন করে শ্বশুর বাড়িতে জীবন কাটাতে পারেন এরা।

 

‘আর’ নামের মেয়েরা

যেসব মেয়েদের নামের আদ্যাক্ষর ‘আর’ তারা খুবই স্বচ্ছশীল হন। এদের মধ্যে শিক্ষাবোধ দূর্দান্ত। জ্ঞান যেহেতু অনেক বেশি তাই কূটনৈতিক বোধও এদের মধ্যে তুমুল, যা তাদের বিপদ আপদে সাহায্য করে। পরিবারের আনন্দ শান্তির জন্য নিজেদের সমস্ত কিছু ত্যাগ করতে রাজি হয়ে যান এরা। যার ফলে পরিবার ও সংসারে খুশি হন ‘আর’ নামের মেয়েরা।