আজ ২৪শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

Screenshot 2020 1024 185256

সাঁথিয়ায় পাষন্ড স্বামীর বর্বরোচিত নির্যাতনের শিকার স্কুলশিক্ষিকা

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: পাবনার সাঁথিয়ায় পাষন্ড স্বামীর যৌতুকের লালসায় নিষ্ঠুর নির্যাতনের শিকার হয়েছেন নার্গিছ খাতুন (৩১) নামে এক স্কুলশিক্ষিকা। তিনি সাঁথিয়া উপজেলার যশোমন্ত দুলিয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের স্ত্রী ও পার্শ্ববর্তী সাগরকান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা।

এ ঘটনায় ওই শিক্ষিকার বাবা হোসেন আলী শেখ বাদী হয়ে শুক্রবার রাতে সাঁথিয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন। মামলার পরপরই থানা পুলিশ আসামী নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।

সাঁথিয়া থানায় দেয়া অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সাঁথিয়া উপজেলার যশোমন্তদুলিয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের সাথে এক বছর আগে বিয়ে হয় পার্শ্ববর্তী আমিনপুর থানাধীন দুর্গাপুর গ্রামের হোসেন আলীর মেয়ে স্কুলশিক্ষিকা নার্গিস খাতুনের (৩১)। বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই তার পাষ- স্বামী নজরুল ইসলাম(৩৫) যৌতুকের টাকার জন্য তার স্ত্রীকে বিভিন্ন সময়ে বিনা কারণে-অকারণে মারপিটসহ শারীরিক নির্যাতন করতো।

এরই ধারাবাহিকতায় গত মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) বিকেলে তার নজরুল স্ত্রীকে বিনা কারণে যৌতুকের টাকা আনার জন্য চাপ দেয়। তখন সে যৌতুকের টাকা দিতে অস্বীকার করলে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করিতে থাকে।

এ পর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে লোহার রড দ্বারা পিটিয়ে নার্গিস খাতুনের শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম করে ফেলে। খবর পেয়ে নার্গিসের পরিবার তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য সাঁথিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

পরে শুক্রবার রাতে নারগিছের বাবা হোসেন আলী সেখ বাদী হয়ে ২ জনকে আসামী করে সাঁথিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন। যার নং ২৫,তারিখ ২৩-১০-২০২০। মামলার পর রাতেই থানা পুলিশ নজরুলকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।

এদিকে বিবাদীরা ফোন করে নার্গিস
খাতুনের বাবাকে বলে মামলা মোকদ্দমা করলে হত্যাসহ বড় ধরনের ক্ষতি করবে মর্মে হুমকি প্রদান করে বলে অভিযোগ করেন হোসেন আলী সেখ। নির্যাতিতা নারগিছ খাতুন বলেন, নজরুলের সঙ্গে তার এক নিকট আত্মীয়ার অবৈধ সম্পর্ক থাকায় এ নিয়েও দুজনের যোগসাজসে প্রায়ই আমাকে নির্যাতন ও মারপিট
করতো।

সাঁথিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অভিযোগ পাওয়ার পরপরই নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়েছে।