আজ ২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

Screenshot 2020 1029 201054

সাঁথিয়ায় ১ সন্তানের জননীকে ধর্ষণ,ধর্ষক আটক

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: পাবনার সাঁথিয়ায় জোরপূর্বক ধর্ষণের স্বীকার হয়েছেন ১ সন্তানের জননী আলেয়া (২৩) (ছদ্ম নাম)।

সে উপজেলার শ্রীধরকোড়া গ্রামের বাসিন্দা। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার শহীদ নগর বাজারে ধর্ষকের নিজ দোকানে। এদিকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ষিতা নিজেই বাদী হয়ে বুধবার রাতে সাঁথিয়া থানায় মামলা দায়ের করে ।

এ ঘটনায় ধর্ষক নজরুল (৪২) কে আটক করে পুলিশ। সে উপজেলার পাইকরহাটি গ্রামের বারেক মির্জার ছেলে।

সাঁথিয়া থানা ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়,গত ২৭ অক্টোবর দুপুরে সাঁথিয়া উপজেলার শহীদ নগর বাজারে ধর্ষিতা ওই মহিলা ধর্ষক নজরুলের দোকানে কসমেটিক কিনতে যায়।

এ পর্যায়ে লম্পট নজরুল তাকে ফুসলিয়ে দোকানের ভিতরে অবস্থিত তার নিজস্ব গোপন কক্ষে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে জোড়পূর্বক ধর্ষণ করে।

বিষয়টি টের পেয়ে স্থানীয়রা কাশিনাথপুর পুলিশ ফাঁড়িতে খবর দেয়। খবর পেয়ে ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই নজরুল সঙ্গীয় ফোর্সসহ ওই দোকানে অভিযান চালিয়ে ধর্ষক নজরুলকে আটক করে প্রথমে ফাঁড়িতে পরে থানায় নিয়ে আসে। পরে ধর্ষিতা ওই মহিলা বিষয়টি থানা পুলিশকে
খুলে বলে।

এ ঘটনায় মেয়েটি নিজেই বাদী হয়ে বুধবার রাতে সাঁথিয়া থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ এসআই নজরুল জানান, ধর্ষক নজরুলের দোকানের ভিতরে একটা গোপন কক্ষ রয়েছে। যেখানে একটি খাট ও বিছানা রয়েছে। সে প্রায়ই মেয়েদের ফুসলিয়ে ওই গোপন কক্ষে নিয়ে অনৈতিক কার্যকলাপে লিপ্ত হত।

সাঁথিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ধর্ষক নজরুলকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। ধষিতা মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পাবনা মেডিক্যালে পাঠানো হয়েছে।