আজ ৭ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

132537Mohan Bhagwat Asaduddin Owaisi

হিন্দুরা দেশদ্রোহী হতে পারে না: ভাগবত, প্রশ্ন ছুড়লেন ওয়েইসি

প্রথমবার্তা প্রতিবেদক: কেউ যদি হিন্দু হয়, তবে সে দেশপ্রেমিক হবে এবং ওটাই হবে তার মৌলিক চরিত্র এবং প্রকৃতিগত বৈশিষ্ট্য। ভারতের হিন্দু জাতীয়তাবাদ নিয়ে এমনটাই বললেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ (আরএসএস) প্রধান মোহন ভাগবত। তার দাবি, আপনি হিন্দু মানেই আপনি দেশপ্রেমী। দেশভক্তি হিন্দুদের চরিত্রের প্রাথমিক বৈশিষ্ট্য। হিন্দুরা আর যাই হোক, দেশদ্রোহী হতে পারে না। আরএসএস প্রধানের এই মন্তব্যে ইতোমধ্যেই বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। তাকে পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন সর্বভারতীয় মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন (এআইএমআইএম) প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়েইসি। তার প্রশ্ন, হিন্দুরা যদি সন্ত্রাসবাদী নাই হবে, তাহলে নাথুরাম গডসে বা গুজরাটের দাঙ্গাকারীরা কী?

শুক্রবার জে কে বাজাজ এবং এম ডি শ্রীনিবাসের লেখা ‘মেকিং অব আ হিন্দু প্যাট্রিয়ট: ব্যাকগ্রাউন্ড অব গান্ধীজিস হিন্দ স্বরাজ’ বইটির উদ্বোধন করতে গিয়ে মোহন ভাগবত দাবি করেন, গান্ধীজি বলেছিলেন, আমার ধর্মই আমাকে দেশভক্তির শিক্ষা দেয়। আমি আমার ধর্মকে বুঝে দেশভক্ত হবো। এবং অন্যদেরও বলবো ধর্ম থেকে শিক্ষা নিয়ে দেশভক্ত হতে। সংঘপ্রধান আরও দাবি করেন, গান্ধীজি নাকি বলেছিলেন, স্বরাজ বোঝার জন্য স্বধর্ম আগে বোঝা জরুরি। মোহন ভাগবতের দাবি, আপনি যদি হিন্দু হন, তাহলে আপনাকে দেশভক্ত হতেই হবে। কারণ, দেশপ্রেম হিন্দুদের চরিত্রের মূল বৈশিষ্ট্য। একজন হিন্দুরা কখনো দেশদ্রোহী হতে পারে না। হয়তো কখনো কখনো তার মধ্যে দেশপ্রেমের ভাব জাগিয়ে তুলতে হয়। কিন্তু দেশবিরোধী কখনই হতে পারে না। ইদানিং সংঘের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে, তারা গান্ধীজির ভাবধারাকে নিজেদের পরিভাষায় বিকৃত করছে। সেই অভিযোগ পুরোপুরি খারিজ করে আরএসএস প্রধান এদিন দাবি করেছেন, গান্ধীজির মতো মহান মানুষদের মতবাদকে বিকৃত করা সম্ভবই নয়।

ভাগবতের এই ‘একতরফা’ দাবি প্রত্যাশিতভাবেই মানতে রাজি নন এআইএমআইএম সুপ্রিমো আসাদউদ্দিন ওয়েইসি। একাধিক উদাহরণ দিয়ে তিনি দাবি করেছেন, হিন্দুরাও দেশদ্রোহী বা সন্ত্রাসবাদী হতে পারে। এক টুইটে সংঘপ্রধানকে উদ্দেশ করে ওয়েইসি বলেন, তাহলে গান্ধীজির হত্যাকারীরা কী? নেলি গণহত্যার নেপথ্যে কারা? গুজরাট দাঙ্গায় এত মানুষের প্রাণ কারা কাড়ল? শিখ দাঙ্গা কাদের কীর্তি? ভাগবত কী জবাব দেবেন? ওয়েইসির দাবি, জাতি ধর্ম নির্বিশেষে বেশিরভাগ ভারতীয়ই দেশপ্রেমী। আরএসএসের ভ্রান্ত ধারণার জন্যই একটা ধর্মের মানুষকে চোখ বন্ধ করে দেশপ্রেমের সার্টিফিকেট দেওয়া হয়, আর অন্যদের তা প্রমাণ করতে জীবন দিয়ে দিতে হয়।