আজ ২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

Screenshot 2020 1023 102511 3

৭ মাস বন্ধ থাকার পর আজ থেকে শুরু ভারত-বাংলাদেশ বিমান চলাচল

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: মহামারী করোনার কারণে টানা ৭ মাস ১০ দিন বন্ধ থাকার অবশেষে আজ বুধবার থেকে চালু হচ্ছে বাংলাদেশের সঙ্গে ভারত বিমান যাতায়াত।বুধবার সকালেই ঢাকা থেকে কলকাতায় নামবে যাত্রীবাহী বিমান।

 

ভারতের দমদম বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সকাল ১০টা ১৫ মিনিট নাগাদ ঢাকা থেকে যাত্রীবাহী বিমান নামবে দমদম বিমানবন্দরে। আর বৃহস্পতিবার থেকে দিল্লি ও চেন্নাই থেকে ঢাকাগামী বিমান যাতায়াত করবে।

 

এর আগে ২৮ অক্টোবর থেকে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে ফ্লাইট চালু হতে যাচ্ছে বলে গণমাধ্যমকে তথ্য নিশ্চিত করেছিলেন বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ারভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান।

 

তবে যাত্রীদের সরকারি নির্দেশনা মানতে হবে বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।তিনি জানিয়েছিলেন, দুই দেশের যাত্রীদের যাতায়াতে কোভিড নেগেটিভ টেস্টের সনদ থাকা বাধ্যতামূলক। বাংলাদেশি যাত্রীদের সরকারনির্ধারিত করোনা শনাক্তকেন্দ্র থেকে এই টেস্ট করাতে হবে।

 

আর ভারত থেকে আসা যাত্রীদের ঢাকায় ভালোভাবে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো হবে। বিমানে ওঠার আগে যাত্রীদের করোনা রিপোর্ট ওয়েবসাইটে দিয়ে দেয়া বাধ্যতামূলক।

 

বেবিচক সূত্রে জানা গেছে, বিশেষ ব্যবস্থায় ‘এয়ার বাবল’ ব্যবস্থায় দুই দেশের মধ্যে ফ্লাইট চলাচল করবে। বাংলাদেশ থেকে ভারতের কলকাতা, দিল্লি ও চেন্নাইয়ে ফ্লাইট চলাচল করবে। প্রতি সপ্তাহে ২৮টি ফ্লাইট বাংলাদেশ থেকে যাবে। কলকাতা ও দিল্লিতে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস, চেন্নাই ও কলকাতায় ইউএস বাংলা এবং নভোএয়ার শুধু কলকাতায় ফ্লাইট পরিচালনা করবে।

 

অন্যদিকে ভারত থেকেও ২৮টি ফ্লাইট ঢাকায় আসবে। ভারতের এয়ার ইন্ডিয়া, ইনডিগো, স্পাইসজেট, ভিস্তারা ও গোএয়ার—পাঁচটি বিমান সংস্থার ফ্লাইট চলাচল করবে।

 

গত ১৩ অক্টোবর ভারতের নতুন হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামীর সঙ্গে পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন সৌজন্য সাক্ষাত করেন। সেখানে বিক্রম দোরাইস্বামী সাংবাদিকদের জানান, অক্টোবরেই এয়ার বাবল নামের বিশেষায়িত কর্মসূচির মাধ্যমে দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে বিমান যোগে যাত্রী পরিবহন নিয়মিত হবে।প্রসঙ্গত গত ১২ মার্চ থেকে বন্ধ রয়েছে কলকাতা-ঢাকার বিমান যোগাযোগ। ফের তা চালুর সিদ্ধান্তে স্বস্তিতে যাত্রীরা।