1. [email protected] : bijoy : bijoy Book
  2. [email protected] : News Room : News Room
  3. [email protected] : news uploader : news uploader
  4. [email protected] : prothombarta :
মোবাইলে বিজয় ব্যবহার ‘বাধ্যতামূলক’ শব্দটি বিভ্রান্তিকর: মন্ত্রী
শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ০৫:২১ দিন

মোবাইলে বিজয় ব্যবহার ‘বাধ্যতামূলক’ শব্দটি বিভ্রান্তিকর: মন্ত্রী

  • পোষ্ট হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ২৬ জানুয়ারী, ২০২৩

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: মুঠোফোনে বিজয় কি-বোর্ড নিয়ে বিটিএসএলের ব্যবহার করা ‘বাধ্যতামূলক’ শব্দটি বিভ্রান্তিকর বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

তিনি বলেন, যিনি উৎপাদক অথবা আমদানিকারক তিনি বাংলা লেখার জন্য বিল্ট ইন একটি সফটওয়্যার দিয়ে দেবেন।

সেখানে বিজয় ব্যবহার করার কথা বলা হয়েছে। ব্যবহার করা না করার স্বাধীনতা আছে ব্যবহারকারীর।

বুধবার (২৫ জানুয়ারি) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ডিসি সম্মেলন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, আমাদের যারা টেলিকম অপারেটর আছেন, তাদের কলড্রপসহ অন্যান্য সমস্যা সহনীয় পর্যায়ে নিয়ে আসার চেষ্টা করছি আমরা। কল ড্রপ নিয়ে ইতোমধ্যেই আমরা একটি পদক্ষেপ নিয়েছি। সেটি হলো ১ম বার কল ড্রপে যে টাকা কাটা যাবে গ্রাহকের তার ৩ গুণ তিনি ফেরত পাবেন।

তিনি বলেন, কল ড্রপ হওয়ার কিছু কারণ আছে। প্রথমত যে পরিমাণ টাওয়ার থাকার কথা, নেই। এবং টাওয়ারের সংযোগে ফাইবার ব্যবহার না করা। ফাইভ-জি চালু করতে হলেও অবশ্যই ফাইবার সংযোগ লাগবে। আরেকটা কারণ হচ্ছে জ্যামার; প্রচুর জ্যামার বসানোর ফলে নেটওয়ার্ক থাকলেও কল ড্রপ হয়। আমরা ইতোমধ্যেই বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়েছি। আমরা প্রতিনিয়ত কোয়ালিটি অব সার্ভিস ইম্প্রুভের দিকে ফোকাস করছি।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, আপনি যদি দেখেন, ১৫ বছর আগে মানুষের চাহিদা ছিল সীমিত। তখন ফোনে একটা কল করতে পারলেই চলত। কিন্তু, এখন প্রতিটি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করে, ভিডিও কল করে। চাহিদা বেড়েছে। এ জন্য আমরা অবকাঠামো উন্নতির দিকে গুরুত্ব দিচ্ছি। প্রযুক্তির পাশাপাশি অবকাঠামোও যাতে উন্নত হয় সেদিকে আমরা লক্ষ্য রাখছি।

ফাইভ-জি নিয়ে মন্ত্রী বলেন, আমরা পুরোপুরি ফাইভ-জি’তে চলে যেতে পারতাম। সে লক্ষ্যে প্রস্তাবনা আমরা একনেকে নিয়েও গিয়েছিলাম। এর জন্য বিপুল বৈদেশিক মুদ্রা দরকার। ফলে, তখন ভেবেছিলাম কিছুদিন পরে আমরা এটা পুরোপুরি চালু করব। বর্তমান পরিস্থিতির উন্নতি হলে আমরা ফাইভ-জিতে চলে যাবো। শিল্পসহ অন্যান্য উন্নয়নের জন্যও ফাইভ-জি অত্যাবশ্যক। কেউ আমাদের দেশে আসে বলে রোবট ফ্যাক্টরি করব, সে যদি ফাইভ-জি সুবিধা চায়, আমাদের দিতে হবে।

Facebook Comments Box

শেয়ার দিয়ে সাথেই থাকুন

print sharing button
এ বিভাগের অন্যান্য খবর