আজ ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

আজ জন্মাষ্টমী

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: আজ মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) সনাতন ধর্মের প্রাণপুরুষ ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মদিন, শুভ জন্মাষ্টমী।করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতির কারণে এবার জন্মাষ্টমী উপলক্ষে কেন্দ্রীয়ভাবে মহানগর সর্বজনীন পূজা কমিটি ও বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে নানা রকম কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এ উপলক্ষে ঢাকেশ্বরী মন্দিরে আজ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে। সকাল ৮টায় শুরু হয়েছে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় গীতাযজ্ঞ।ভার্চুয়াল ব্যবস্থাপনায় অনুষ্ঠানে যোগদান করার কথা রয়েছে  আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের।সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস অনুসারে দ্বাপর যুগের শেষভাগে ভাদ্র মাসের কৃষ্ণপক্ষের অষ্টমী তিথিতে মথুরায় কংসের কারাগারে শ্রীকৃষ্ণের জন্ম হয়। তাই শ্রীকৃষ্ণের এই জন্ম তিথিকে ঘিরে উৎসবের আয়োজন করা হয়।আজ সকাল ৯টা ৬ মিনিটে অষ্টমী তিথি শুরু হচ্ছে এবং আগামীকাল বুধবার বেলা ১১টা ১৬ মিনিটে অষ্টমী তিথি শেষ হবে।হিন্দু পঞ্জিকা মতে, ভগবান বিষ্ণুর অষ্টম অবতার হয়ে শ্রীকৃষ্ণ এই দিন জন্ম নিয়েছিলেন মা দেবকীর গর্ভে। ছোটবেলায় তাঁকে সবাই আদর করে গোপাল বলে ডাকত। তাই সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ঘরে ঘরে এই দিন শ্রীকৃষ্ণ বা গোপাল পূজার আয়োজন করা হয়। তিনি গোবর্ধন পর্বতকে এক আঙুলে তুলেছিলেন বলে তাঁর আরেক নাম গোবর্ধন। কৃষ্ণ জন্মাষ্টমীকে কৃষ্ণাষ্টমী, গোকুলাষ্টমী, অষ্টমী রোহিনী, শ্রীকৃষ্ণজয়ন্তী এবং শ্রীজয়ন্তীও বলা হয়। সনাতন ধর্মাবলম্বীরা বিশ্বাস করে কৃষ্ণ ছিলেন স্বয়ং ঈশ্বর। দুষ্টের দমন করে পৃথিবীতে শান্তি ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার জন্য তিনি মানুষের রূপ নিয়ে পৃথিবীতে এসেছিলেন।প্রতিবছরের মতো এবারও ১১ ও ১২ আগস্ট সারা দেশে জন্মাষ্টমীর উৎসব পালিত হবে। হিন্দু সম্প্রদায় উপবাস, অর্চনা ও কৃষ্ণ নাম কীর্তনসহ বিভিন্ন আচার-উপাচারের মাধ্যমে যথাযোগ্য ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতায় দিনটি উদযাপন করবে। এরই মধ্যে অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি শুরু হয়েছে।