আজ ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ইলিশে বাজার ভর্তি রাজধানীতে, দামও বেশ সস্তা

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ জেলেদের জালে সাগরের ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে ইলিশ। এতে রাজধানীর বাজারগুলোতে সরবরাহ বেড়েছে রুপালি ইলিশের। সরবরাহ বেশি থাকায় বাজারে আসা ইলিশের দামও বেশ সস্তা। অতি স্বাদের এই ইলিশের দাম নাগালের মধ্যে থাকায় ক্রেতারাও বেশ সন্তুষ্ট।শনিবার (১৫ আগস্ট ) রাজধানীর ইলিশ মাছের বাজার ঘুরে দেখা যায় এ চিত্র। বরিশাল, চাঁদপুরসহ বিভিন্ন আড়ত থেকে বাজারে আসছে রুপালি ইলিশ। করোনার এই সময় মাছ কিনতে আসা ক্রেতার সংখ্যাও নেহাত কম না।বর্তমান বাজারে প্রতিকেজি ইলিশ বিক্রি হচ্ছে, বড় সাইজের ইলিশ অর্থাৎ এক কেজি বা তার চেয়ে বড় মাছ বিক্রি হচ্ছে ৯০০-১০০০ টাকায়, ৮০০ থেকে ৯০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ মাছ বিক্রি হচ্ছে ৭০০-৮০০ টাকায়, এর চেয়ে ছোট সাইজের ইলিশ মাছ বিক্রি হচ্ছে ৪০০-৬০০ টাকার মধ্যে।ইলিশ মাছ কিনতে আসা রায়হান মিয়া বলেন, বাজারে ইলিশ মাছের সরবরাহ যথেষ্ট বেড়েছে। দাম কম হওয়ায় ইলিশের বাজারে কিছুটা স্বস্তি আছে। তবে চাহিদা বৃদ্ধির সাথে সাথে বিক্রেতারা যেন দাম বাড়াতে না পারে সে ব্যাপারে কর্তৃপক্ষের নজর দিতে হবে।বাজার করতে আসা শান্তা ইসলাম নামে আরেক ক্রেতা বলেন, মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে বাজারে আসা আমাদের জন্য একটু ঝুঁকিপূর্ণ। কিন্তু বাজারে এখন পর্যাপ্ত রূপালী ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে এজন্য ইলিশের লোভেই বাজারে এসেছি। দাম কিছুটা সস্তা, তবে মাছের বিক্রেতারা দাম বেশি চাইছেন বার্গেনিং করলে কম দামে কিনতে পারছি রূপালী ইলিশ।ইলিশ মাছ ব্যবসায়ী মো. হারুনুর রশিদ বলেন, যেহেতু এখন ইলিশের মৌসুম আর বাজারেও পর্যাপ্ত মাছ আছে সুতরাং দাম কিছুটা কম রয়েছে। তবে সাগরে গত সপ্তাহের তুলনায় মাছ কিছুটা কম ধরা পড়ছে ফলে মাছের আড়ত গুলোতেও বর্তমানে মাছ কিন্তু কম আসছে।তিনি আরো বলেন, বাজারে ইলিশের সরবরাহ যথেষ্ট আছে এবং করোনার কারণে ক্রেতাদের চাহিদাও খুব বেশি লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। বর্তমানে ইলিশের যে দাম রয়েছে সামনের দিকে মাছের দাম আরও কিছুটা কমবে বলে আশা করছি।ইলিশ মাছের ক্রেতাদের উদ্দেশ্যে এই বিক্রেতা বলেন, বাজারে চাঁদপুর, বরিশাল এবং চট্টগ্রামের মাছ পাওয়া যাচ্ছে। একেক মাছের দাম একেক রকম। তাই ক্রেতাদের বলবো দেখে শুনে ভালো ইলিশ কেনার জন্য।