আজ ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

শোক দিবসে এতিমদের জন্য খাবার পাঠালেন মাশরাফি

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৫তম শাহাদৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনায় নড়াইলে এতিমখানার শিশুদের খাবার দিয়েছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা।

শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে এই মধ্যাহ্নভোজে খাবার বিতরণ করেন তিনি।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন খান নিলুর তত্বাবধানে বিভিন্ন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ও চেয়ারম্যানবৃন্দের মাধ্যমে প্রতিটি ইউনিয়নের এতিমখানায় এই মধ্যাহ্নভোজ পৌঁছে দেয়া হয়।

জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম পলাশ বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমি এতিমদের সবচেয়ে বেশি ভালোবাসি। এতিমদের ব্যথা আমি বুঝতে পারি। জননেত্রী শেখ হাসিনা যাদের সবচেয়ে বেশি ভালোবাসেন, মাশরাফি বিন মর্তুজাও তাদের ভালোবাসেন। তাইতো আজ এমন ব্যতিক্রমী আয়োজন।

শোক দিবসে এতিম শিশুদের স্মরণে রাখায় সাংসদ সদস্য মাশরাফিকে ধন্যবাদ জানিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হাফিজ খান মিলন জানান, মাশরাফি একজন মানবিক মানুষ- যার প্রমাণ তিনি আজও দিলেন। জাতীর পিতার মৃত্যুবার্ষিকীতে প্রকৃত অসহায় শিশুদের মাঝে খাবার দিয়ে তিনি আবারো মানবিকতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন।

চন্ডিবরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান ভূঁইয়া তার এলাকার এতিমখানায় নিজ হাতে এতিম শিশুদের মাঝে খাবার তুলে দেন এবং বলেন, এমন একজন সাংসদ চেয়েছিলাম যিনি সর্বদা অসহায় মানুষের কথা ভাববেন। আমরা এমন একজন মানবিক মানুষকেই আমাদের সংসদ সদস্য হিসেবে পেয়েছি। আমরা নড়াইলের মানুষেরা ধন্য হয়েছি।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন খান নিলু জানান, জননেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে মানবিক সাংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজার সৌজন্যে মধ্যাহ্নভোজ এতিমখানায় এতিমখানায় পৌঁছে দিতে পেরে সত্যি খুব ভালো লাগছে। এই নিষ্পাপ শিশুরা মন খুলে আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ১৫ আগস্টের শহীদদের জন্য দুই হাত তুলে মহান আল্লাহর কাছে দোয়া করেছে। এটাই আজকের দিনে আমাদের বড় প্রাপ্তি।

এদিকে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এক শোকবার্তায় মাশরাফি বিন মর্তুজা বলেন, আজ শোকাবহ ১৫ আগস্ট। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৫তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস ২০২০। জাতীয় শোক দিবসে আমি সশ্রদ্ধচিত্তে স্মরণ করছি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, মহান স্বাধীনতার স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। স্মরণ করছি মহীয়সী নারী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবকে, স্মরণ করছি শহিদ শেখ কামাল, শহিদ শেখ জামাল,শহিদ শেখ রাসেলসহ ১৫ আগস্টের সকল শহিদদের।

তিনি বলেন, অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমৃত্যু আপোসহীন, আজীবন লড়াই-সংগ্রাম করা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কোটি কোটি মানুষের হৃদয়ে পরম শ্রদ্ধায় চিরদিন বেঁচে থাকবেন তার তর্জনীর হেলনে, তার দরাজ কণ্ঠের বক্তৃতায় আর এদেশের মাটি ও মানুষকে জীবন দিয়ে ভালোবাসার জন্য।

আজকের দিনে আমাদের অঙ্গিকার হোক, আগস্টের শোককে শক্তিতে পরিণত করে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করা, বলেন মাশরাফি।