আজ ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ভাসমান জুয়ার আসর, জুয়াড়িরা আসে প্রাইভেটকারে!

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:  মেম্বরদের নেতৃত্বে চলে ওয়ানটেন বোর্ড (জুয়ার আসর)। বিষয়টি প্রশাসনকে জানিয়েছেন চেয়ারম্যান। গতকাল সোমবার উপজেলা আইন শৃংখলা সভায় মহেড়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. বাদশা মিয়া ওয়ানটেন বোর্ড জুয়ার আসর চালানোর বিষয়টি তুলে ধরেন।

উপজেলার মহেড়া ইউপির ৫নম্বর ওয়ার্ড সদস্য মো. ছোরহাব মিয়া ও ৯নম্বর ওয়ার্ডের আরিফ মিয়া দীর্ঘদিন উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ইঞ্জিন চালিত নৌকায় ওয়ানটেন বোর্ড (জুয়ার আসর) চালিয়ে আসছিল। এতে মির্জাপুরের বিভিন্ন এলাকা, কালিয়াকৈর, ধামরাই ও ঘাটাইলসহ কয়েকটি উপজেলা থেকে প্রাইভেটকার যোগে জুয়াড়িরা ওয়ানটেন জুয়া খেলায় অংশ নেয়। ওই জুয়ার আসরে প্রতিদিন রাতে প্রায় কোটি টাকার খেলা হয়ে থাকে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছেন।

প্রতিদিনের ন্যায় সোমবার বিকেল থেকে জুয়াড়িরা উপজেলার আগ ছাওয়ালী গ্রামের রশিদ মিয়ার বাড়িতে উপস্থিত হতে থাকেন। রাত গভীর হওয়ার পর ইউপি সদস্য ছোরহাব ও আরিফের নেতৃত্বে জুয়াড়িদের ইঞ্জিন চালিত নৌকায় উঠিয়ে চকের মাঝখানে নৌকা থামিয়ে সারারাত ওয়ানটেন (জুয়ার আসর) চলে। এতে এলাকায় আইন শৃংখলার অবনতির আশঙ্কা করে স্থানীয়রা ইউপি চেয়ারম্যান মো. বাদশা মিয়াকে অবহিত করেন।

সোমবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল মালেকের সভাপতিত্বে আইন শৃংখলা বিষয়ক সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় ইউপি চেয়ারম্যান মো. বাদশা মিয়াসহ একাধিক ব্যক্তি নৌকার ওপর ওয়ানটেন জুয়ার আসর চালানো এবং আইন শৃংখলা অবনতির বিষয়টি তুলে ধরেন।

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:  সন্ধ্যায় উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. জুবায়ের হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশ রশিদ মিয়ার বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এসময় জুয়াড়িরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. জুবায়ের হোসেন জুয়াড়িদের আটক করতে না পারলেও তিনটি প্রাইভেটকার ও ঢাকার উত্তরপাড়া এলাকার তোফাজ্জল হোসেন নামে একজন চালক আটক করেন। পরে তার কাছ থেকে সড়ক পরিবহন আইনের ৭৫ ধারায় ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন। অন্য দুটি প্রাইভেটকার (ঢাকা মেট্রো-গ- ২৬-২৪৬৫ ও ঢাকা মেট্রো-গ-১২-৮২৮৫) লক থাকায় ইউপি চেয়ারম্যান মো. বাদশা মিয়ার তত্ত্বাবধানে রাখা হয়।

মহেড়া ইউনিয়ন পরিষদের ৫নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার মো. ছোরহাব মিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, নৌকার মধ্যে দুইদিন আগে চালু করা হয়েছিল। পুলিশ অভিযান চালিয়ে তা বন্ধ করে দিয়েছে।

মির্জাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সায়েদুর রহমান জানান, আগ ছাওয়ালী গ্রামে জুয়ার আসরের বিষয়টি তার জানা ছিল না।

মির্জাপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. জুবায়ের হোসেন জানান, ইউপি চেয়ারম্যান মো. বাদশা মিয়া মাসিক আইন শৃংখলা সভায় তার ইউনিয়নে চলা জুয়ার বিষয়টি তুলে ধরেন। আটককৃত তিন প্রাইভেটকারের মালিকের কাছ থেকে সড়ক পরিবহন আইনে ৬৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। মহেড়া ইউপি সদস্য মো. ছোরহাব হোসেনের নেতৃত্বে ওই জুয়ার আসর চালানো হয় বলে স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে তিনি জেনেছেন বলে জানান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল মালেক বলেন, আইন শৃংখলা সভায় ইউপি চেয়ারম্যানের মাধ্যমে জুয়ার বিষয়টি জানতে পারেন। উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) জুবায়ের হোসেনের নেতৃত্বে অভিযান চালানো হয়েছে।