আজ ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

পকিস্তানের সেনাপ্রধানের সঙ্গে দেখাই করলেন না সৌদি যুবরাজ!

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:  পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্কের শীতলতা কাটাতে রাজি নয় সৌদি আরব। কিছুদিন আগে কাশ্মীর ইস্যুতে মুসলিম দেশগুলোকে নিয়ে বৈঠক না করায় সৌদি আরবের সমালোচনা করেছিলেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি। ফলে পাকিস্তানকে ধারে তেল সরবরাহ চুক্তি বাতিল করে দেয় সৌদি আরব।

পরিস্থিতি সামাল দিতে সেনাপ্রধান কামার জাভেদ বাজওয়াকে রিয়াদে পাঠিয়ে সম্পর্কের তিক্ততা কমানোর চেষ্টা করেছিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। কিন্তু তাঁর সেই উদ্যোগ কোনো কাজেই এলো না। পাকিস্তানের সেনাপ্রধানের সঙ্গে দেখাই করলেন না সৌদির যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান।গত সোমবার রিয়াদ সফরে যান পাকিস্তানের সেনাপ্রধান কামার জাভেদ বাজওয়া।

দু’দেশের মধ্যে তৈরি হওয়া তিক্ততা কাটানোর জন্য মঙ্গলবার তিনি সৌদির যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলেন। পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি যে মন্তব্য করেছিলেন, সে বিষয়ে ক্ষমা চাওয়ার পাশাপাশি সৌদি আরব যেন পুরনো চুক্তি ফের বহাল করে, সে জন্য অনুরোধও জানাতে চেয়েছিলেন।

কিন্তু, পাক সেনা প্রধানের সেই আহ্বানে সাড়া দেননি সৌদির যুবরাজ।বাধ্য হয়ে সৌদি আরবের সহকারী প্রতিরক্ষা মন্ত্রী শেখ খালিদ বিন সালমান ও সেনাপ্রধান জেনারেল ফাইয়াদ বিন হামিদ আল রওয়ালির সঙ্গে দেখা করেন বাজওয়া। তাঁদের কাছে পাকিস্তান সরকারের বার্তা সৌদির যুবরাজের কাছে পৌঁছে দেওয়ার অনুরোধ জানান।

সৌদির সেনাপ্রধান তাঁর অনুরোধ যুবরাজকে জানাবেন বলে আশ্বস্ত করলেও সমস্যা সমাধানের বিষয়ে কোনো প্রতিশ্রুতি দেননি।প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগে ইসলামিক দেশগুলোর সংগঠন ওআইসি-তে কাশ্মীর ইস্যুতে আলোচনা করতে চেয়েছিলেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি। কিন্তু, সৌদি আরব তাতে সাড়া না দেওয়ায় রিয়াদের তুমুল সমালোচনা করেন তিনি।

হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, সৌদি আরব যদি এই কাজ না করতে পারে তাহলে পাকিস্তানই মুসলিম দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের নিয়ে আলাদাভাবে বৈঠক ডাকবে। তাতে সৌদি থাকুক বা না থাকুক, কিছু যায় আসে না।সূত্র : টাইমস নাউ নিউজ।