আজ ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

বলিউড মাফিয়াদের চাপে পড়ে সম্পর্ক ভাঙে সুশান্ত-সারা’র

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু ক্রমশ রহস্যে পরিণত হয়েছে। বলিউডের মাফিয়াদের নাম জড়িয়েছে তাঁর মৃত্যুর সঙ্গে। সালমান খানকে বলা হয়েছে বলিউড মাফিয়া। একচেটিয়া রাজ্য চালাতে তিনি যা ইচ্ছে তাই করেন। সুশান্তের মৃত্যুর পিছনেও তাঁর হাত থাকতে পারে। তবে সব পরিস্কার হবে তদন্তের পর।

নেপোটিজম নিয়েও কথা হয়েছে। কাঠগড়ায় তোলা হয়েছে করণ জোহর, সঞ্জয়লীলা বনশালি, একতা কাপুরসহ আরও অনেক বলিউডের প্রযোজকদের। সামনে এসেছে মহেশ ভাটের নামও।

সুশান্তের সেই সময়কার প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীকে নানা ভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। মনে করা হচ্ছে রিয়ার হাতও থাকতে পারে এই মৃত্যুর পিছনে। সুশান্তের সঙ্গে অঙ্কিতা লোখান্ডে, কৃতি শ্যানন, রিয়া চক্রবর্তী ছাড়াও বলিউডের নবাব কন্যা সারার নামও কিন্তু উঠে আসছে আলোচনায়।

সম্প্রতি কঙ্গনা রানাওয়াত কটাক্ষ করেছেন সারা আলি খানকে। বলেছেন, ‘প্রেমে উসকে সুশান্তকে ছেড়ে দিয়েছেন সারা।” যদিও এতদিন জানা গিয়েছিল সুশান্ত ও সারা শুধু মাত্র ভাল বন্ধু। কোনও প্রেম ছিল না তাঁদের মধ্যে। সারার বরং বরাবরের পছন্দ কার্তিক আরিয়ানকে। সে কথা স্পষ্ট জানিয়েছিলেন তিনি। বলেছিলেন, কার্তিকের সঙ্গে ডেট করতে চান। তবে সুশান্তের সঙ্গে তাঁর নাম জড়ানোয় সকলেই বেশ চমকেছেন।

যদিও কঙ্গনার কথায় ধোঁয়া দিলেন সুশান্তের বন্ধু স্যামুয়েল হাওকিপ। সে তাঁর ইনস্টগ্রাম প্রোফাইলে সারা ও সুশান্তের প্রেমের কথা জানিয়েছে। ‘কেদার নাথ’ ছবির শ্যুটিং থেকেই সারা ও সুশান্তের প্রেম ছিল। ওরা একে অপরকে খুব শ্রদ্ধা করত। এবং ভীষণ ভালোবাসত। এক সঙ্গে ঘুরতেও যেত। তবে সারা কখনও প্রকাশ্যে এই সম্পর্ক নিয়ে কথা বলেননি।

স্যামুয়েল তাঁর পোস্টে লিখেছেন, “২০১৯-এ ‘শোনচিড়িয়া’ মুক্তি পাওয়ার পর হঠাৎই ছাড়াছাড়ি হয়ে যায় তাঁদের। ‘শোনচিড়িয়া’ বক্স অফিসে খারাপ করে। তারপরেই ব্রেক-আপ। আমার মনে হয় বলিউড মাফিয়াদের চাপে পড়েই এই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে গিয়েছেন সারা।”

এই পোস্ট শেয়ার হতেই ফের ভক্তদের মধ্যে কথা হাতে থাকে। সাইফ আলি খান ও অমৃতা সিংয়ের মেয়ে সারা। আর সুশান্ত বলিউডের তথাকথিত কোনও স্টার কিড নন। তাই এই সম্পর্ক মেনে না নিতেই পারে নসাইফ পরিবার। চাপ আসতেই পারে। অনেকেই আবার বলেছেন, সুশান্তের সঙ্গে সম্পর্ক থাকলে বলিউডে কাজ না পাওয়ার ভয় থেকেও ছেড়ে দিতে পারেন সারা। তবে স্যামুয়েলের কথা অনুযায়ী, মাফিয়াদের চাপেই সম্পর্কে ইতি টানেন সারা। নিউজএইটিন