আজ ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

এক কোটি ৬০ লাখ টাকায় ছাড়া পেলেন রোনালদিনহো

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ খানিকটা হলেও স্বস্তি। জেল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ব্রাজিলের সর্বকালের সেরা ফুটবলার রোনালদিনহো। ভুয়া পাসপোর্ট নিয়ে প্যারাগুয়েতে প্রবেশের অপরাধে দেশটির পুলিশ রোনালদিনহো এবং তার ভাইকে গ্রেপ্তার করে। এরপর থেকে সেখানেই পাঁচমাস ধরে জেল ও গৃহবন্দি ছিলেন এই বিশ্বকাপ তারকা। খবর ডয়েচে ভেলে।

 

গত সোমবার রোনালদিনহোকে মুক্তি দিয়েছে প্যারাগুয়ের বিচারক। তবে পুরোপুরি নিস্তার পাননি ব্রাজিলের এই প্রাক্তন সুপারস্টার। তাকে জরিমানা হিসেবে গুনতে হচ্ছে দুই লাখ ডলার (বাংলাদেশি টাকায় এক কোটি ৬০ লাখ)।২০০২ সালে ব্রাজিলের বিশ্বকাপ জয়ী দলের অন্যতম সদস্য রোনালদিনহো। দুইবার ফিফার বিশ্বসেরা ফুটবলারও নির্বাচিত হয়েছিলেন।

 

তিনি মাঝ মাঠের প্লেয়ার কিন্তু ফরোয়ার্ড বা উইং-এও অসাধারণ খেলতেন। গোলার মতো শট, নজরকাড়া ড্রিবল, গোলের ঠিকানা লেখা নিখুঁত পাস ছিল তার বৈশিষ্ট্য। পায়ে বল পেলেই হয়ে উঠতেন বিপক্ষের ত্রাস। সে সময় তাকে সর্বকালের সেরা ফুটবলারদের তালিকায় রাখতেন অনেক বিশেষজ্ঞই।রোনালদিনহো বার্সেলোনা এবং এফসি-তে খেলেছেন।

 

এসি মিলানের হয়েও ফুটবলের জাদু ছড়িয়েছেন মাঠে। এছাড়াও বেশ কযেকটি ক্লাবে তাকে খেলতে দেখা গেছে। ২০১৫ সালে তিনি শেষ প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ খেলেন। ততদিনে বিভিন্ন ক্লাবের হয়ে ৪৪১টি ম্যাচ খেলে ১৬৭টি গোল করে ফেলেছিলেন তিনি। দেশের হয়ে ১৩৫টি ম্যাচে গোল করেছিলেন ৫৬টি।

 

প্রসঙ্গত, রোনালদিনহোকে স্থানীয় একটি সংস্থা তার আত্মজীবনী প্রচারের জন্য আমন্ত্রণ জানায়। পরে গত ৪ মার্চ ভাইকে নিয়ে প্যারাগুয়ে পৌঁছান রোনালদিনহো। তার ভাই রোনালদিনহোর বিজনেস ম্যানেজার হিসাবে কাজ করতেই। কিন্তু দুই দিন পরেই পুলিশ সাবেক এই ফুটবল তারকা ও তার ভাইকে গ্রেপ্তার করে। অভিযোগ ওঠে, তারা জাল পাসপোর্ট নিয়ে প্যারাগুয়েতে প্রবেশ করেছিলো।

 

প্রথমে তাদের ৩২ দিন হাই সিকিউরিটি জেলে রাখা হয়েছিল। জেলের ভেতরেই ৪২তম জন্মদিন পালন করেন রোনালদিনহো। এরপর বিলাসবহুল একটি হোটেলে ঘরবন্দি করে রাখা হয় তাদের। তার আগে অবশ্য তারা জামিনের জন্য ১৬ লাখ ডলার দিয়েছিলেন। সোমবার বিচারক বলেন, রোনালদিনহো ও তার ভাই এখন দ্রুত ব্রাজিলে ফিরতে পারবেন।