আজ ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

দিনে কতগুলো ডিম খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ভালো?

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ  প্রোটিনের সমৃদ্ধ উৎস ডিম অনেকের কাছেই প্রিয় খাবার। বিশেষ করে ওজন নিয়ন্ত্রণে চেষ্টা করে যাচ্ছেন, এমন মানুষের কাছে ডিম একটু বেশিই প্রিয়। সেলেনিয়াম, ভিটামিন ডি, ভিটামিন বি ৬, ভিটামিন বি ১২, দস্তা, তামা এবং আয়রন সমৃদ্ধ ডিম বাড়ন্ত শিশু, ক্রীড়াবিদ, যেকোনো অসুস্থতা থেকে সেরে ওঠা ব্যক্তি এবং সাধারণভাবে প্রত্যেকের জন্য আদর্শ হিসাবে বিবেচিত হয়।

 

ডিমকে একটি সম্পূর্ণ খাদ্য বলা যেতে পারে।ডিম স্বাস্থ্যকর এবং পুষ্টি সরবরাহ করে তবে ডিমে কোলেস্টেরল থাকে। তাই এই প্রশ্ন সবার মনেই আসতে পারে যে, দিনে কতগুলো ডিম খাওয়া আসলে নিরাপদ? বিশেষজ্ঞদের মতে, একদিনে একজনের মধ্যে ৩০০ মিলিগ্রামের বেশি কোলেস্টেরল গ্রহণ করা উচিত নয় এবং একটি আস্ত ডিমে প্রায় ৩৭৩ মিলিগ্রাম কোলেস্টেরল থাকে।

 

তাই দিনে একটি ডিম খাওয়া সম্পূর্ণ নিরাপদ এবং স্বাস্থ্যকর। এটি পুরুষ এবং নারীর মধ্যে কার্ডিওভাসকুলার সমস্যা বিকাশে কোনো প্রভাব ফেলে না। প্রতিদিন একটি আস্ত ডিম ডায়াবেটিস এবং হার্টের সমস্যায় ভুগছেন এমন ব্যক্তির জন্যও নিরাপদ।প্রকৃতপক্ষে, প্রতিদিন দু-তিনটি ডিম খেলে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ার সম্ভাবনা খুব বেশি নয়, যদিও এটি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত ব্যক্তির জন্য সমস্যা হতে পারে।

 

আরও সঠিক তথ্য অনুসন্ধানের জন্য গবেষকরা জনসংখ্যা স্বাস্থ্য গবেষণা ইনস্টিটিউট কর্তৃক পরিচালিত তিনটি আন্তর্জাতিক গবেষণা বিশ্লেষণ করেছেন। গবেষণার জন্য, ৬টি মহাদেশের ২১টি দেশের বিভিন্ন আয়ের মোট ১ লাখ ৪৬ হাজার ১১ জন ব্যক্তিকে মূল্যায়ন করা হয়েছিল।ফলাফলে দেখা গেছে, দিনে একটি ডিম খাওয়ায় কোনো ক্ষতি নেই।

 

গবেষণায় জড়িত বেশিরভাগ ব্যক্তি প্রতিদিন একটি বা কম ডিম গ্রহণ করেন এবং কোনো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি।আপনার খাবারের তালিকায় প্রতিদিন একটি ডিম রাখা ভালো। যদি উচ্চ প্রোটিনযুক্ত ডায়েটে থাকেন তবে আপনি তিনটি পর্যন্ত ডিম খেতে পারেন। ডায়াবেটিস এবং কার্ডিওভাসকুলার সমস্যাযুক্ত ব্যক্তিদের অতিরিক্ত সতর্ক হওয়া উচিত এবং দিনে একাধিক সম্পূর্ণ ডিম খাওয়া উচিত নয়।