আজ ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

কলেজছাত্রীকে নির্যাতন, ওসি মর্জিনাসহ চার জনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ কলেজছাত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগে কক্সবাজারের উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মর্জিনা আকতারসহ চার পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন, কনস্টেবল মো. সুমন, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) নুরুল ইসলাম ও এএসআই মো. শামীম।

মঙ্গলবার কক্সবাজার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ‘নির্যাতিতা’ কলেজছাত্রী মামলাটি দায়ের করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে পিবিআইয়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপারকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে।

মামলার এজাহারে উল্লেখ রয়েছে, কনস্টেবল মো. সুমনের (বর্তমানে রাঙামাটি পুলিশ সুপার কার্যালয়ে কর্মরত) সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল ওই নারীর। এ সুবাদে বিয়ের কাবিনের কথা বলে ৭ জুলাই বেলা ২টার দিকে ওই ছাত্রীকে রামুর খুনিয়াপালং চেকপোস্ট-সংলগ্ন কক্ষে নিয়ে যায় সুমন। নিকাহ রেজিস্ট্রার আসার অপেক্ষার অজুহাতে তাকে কক্ষে বসিয়ে রাখেন সুমন। পরে সেখানে তাকে ধর্ষণ করা হয়। এরপর চেকপোস্টের পাশের একটি দোকানে বসিয়ে রেখে জরুরি কাজের বাহানায় পালিয়ে যায় কনস্টেবল সুমন।

ঘটনাটি রাত ১১টার দিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপারকে ফোনে জানান ওই ভুক্তভোগী কলেজছাত্রী। তার পরামর্শে উখিয়া থানায় গেলে ভুক্তভোগীকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে তার মোবাইল ফোন কেড়ে নেন ওসি মর্জিনা আকতার। পরে অভিযুক্ত ওসিসহ অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তাদের সহযোগিতায় তাকে থানার একটি কক্ষে আটকে রেখে ব্যাপক মারধর ও নির্যাতন চালানো হয়। এমনকি পায়ে রশি ও হিজাব দিয়ে চোখ বেঁধে একটি কক্ষে আটকিয়ে রাখারও অভিযোগ এনেছেন ভুক্তভোগী। মামলার আরজির সঙ্গে নির্যাতনের কিছু ছবিও যোগ করেন তিনি।

মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে ওই ট্রাইব্যুনালের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট একরামুল হুদা জানান, নির্যাতিতা কক্সবাজারের একটি বেসরকারি কলেজের ছাত্রী।