আজ ৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

চট্টগ্রামে কমেছে করোনা সংক্রমণের হার

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে সংক্রমণের হার কমেছে। গতকাল বুধবার নতুন ৭৪ জনের দেহে সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। সংক্রমণের হার ৯ দশমিক ৩০ শতাংশ।চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টার রিপোর্টে বলা হয়, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের সাতটি ল্যাবে ৭৯৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়।

 

নতুন আক্রান্ত ৭৪ জনের মধ্যে নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডের ৬৬ জন এবং পাঁচ উপজেলার ৮ জন। চট্টগ্রামে এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত ১৬ হাজার ৭৬২ জন। গতকাল করোনান্তদের মধ্যে দুইজন মারা গেছেন। ফলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে এখন ২৬৭ জন।জানা যায়, করোনার প্রকোপ শুরুর পর থেকে গতকাল সংক্রমণের হার নমুনার সংখ্যার হিসেবে ছিল সবচেয়ে কম।

 

এর আগে একদিন আটের কাছাকাছি থাকলেও নমুনার সংখ্যা ছিল অনেক কম।সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বি আজ বাসসকে বলেন, ‘ঈদুল আজহার সময়ে একদিন সংক্রমণ হার এর চেয়ে কমেছিল। কিন্তু তখন নমুনা পরীক্ষা ছিল অনেক কম, দুইশ’র মতো। গতকাল প্রায় আটশ’ পরীক্ষায় সংক্রমণ সিঙ্গেল ডিজিটে থাকা ভালো লক্ষণ।

 

চট্টগ্রামে বেশ কিছুদিন ধরে ১০ থেকে ১৭-এর মধ্যেই সংক্রমণ হার থাকছে।’রিপোর্ট বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত মঙ্গলবার ৭৬ জন করোনাক্রান্ত হন, সংক্রমণ হার ১০ দশমিক ১৮ শতাংশ। ২৪ আগস্ট সোমবার ৮৮ জন করোনা পজেটিভ শনাক্ত হন। সংক্রমণ হার ১২ দশমিক ০২ শতাংশ। ২৩ আগস্ট রোববার সংক্রমিত ১০৫ জন, সংক্রমণ হার ১৩ দশমিক ৭২ শতাংশ।

 

২২ আগস্ট জীবাণু মেলে ৩২ জনের নমুনায়। সংক্রমণ হার ১০ দশমিক ৮৮ শতাংশ। ২১ আগস্ট ৮৩টি নমুনা পজিটিভ শনাক্ত হয়, সংক্রমণ হার ১২ দশমিক ৪২ শতাংশ। ২০ আগস্ট আক্রান্ত হন ৮৯ জন, সংক্রমণ হার ১০ দশমিক ৯০ শতাংশ। ১৯ আগস্ট ৯৭ জনের দেহে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়। সংক্রমণ হার ১২ দশমিক ৯ শতাংশ।গতকালের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে দেখা যায়, ফৌজদারহাটস্থ বিআইটিআইডি ল্যাবে ২৮৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়।

 

এতে নগরীর ১৬ জনসহ ১৭ জনের দেহে করোনার জীবাণু মেলে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবেও নগরীর ১৬ জনসহ ১৭ জনের নমুনায় করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। তবে, এখানে ১৫০ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়। চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি এন্ড এনিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ১০৬টি নমুনার মধ্যে নগরীর ৫ ও উপজেলার ৫ টিতে করোনার জীবাণু পাওয়া যায়।

 

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ১০২ জনের নমুনায় নগরীর ১৪ জনসহ ১৮ জন পজিটিভ শনাক্ত হন। বেসরকারি ল্যাব ইম্পেরিয়াল হাসপাতালে ৯১ ও শেভরণে ৪৮ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়। এতে যথাক্রমে ৭ ও ৮ জনের শরীরে করোনার অস্তিত্ব মিলেছে। কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ১২ টি নমুনা পাঠানো হয়। রিপোর্টে ২ জনকে পজিটিভ শনাক্ত করা হয়।পাঁচ উপজেলায় সংক্রমণের পরিসংখ্যানে হাটহাজারীতে ৩, বাঁশখালীতে ২ এবং রাউজান, সীতাকু- ও সন্দ্বীপে ১ জন করে রয়েছেন। সূত্র: বাসস