আজ ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩০শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

চালু হলো আরও ১৮ জোড়া ট্রেন

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ  দেশে করোনা পরিস্থিতির মাঝেই যাতায়াত স্বাভাবিক করার অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার থেকে আরও ১৮ জোড়া যাত্রীবাহী ট্রেন চালু হয়েছে। এর মধ্যে আন্তঃনগর, মেইল ও কমিউটার ট্রেনও রয়েছে।

 

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ঢাকা এবং ঢাকার বাইরে বিভিন্ন রুটে এই ১৮ জোড়া যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল শুরু হয়।করোনা পরিস্থিতিতে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর একসঙ্গে এত ট্রেন চালু হয়নি।

 

এখন থেকে সব মিলিয়ে চলছে ৪৮ জোড়া ট্রেন।নতুন এসব ট্রেনের মধ্যে অর্ধেক পূর্বাঞ্চলে এবং অর্ধেক পশ্চিমাঞ্চলে। ট্রেনের টিকিট বিক্রি হচ্ছে শুধু অনলাইনে। যাত্রীদের যাতায়াতের সুবিধায় বাধ্যতামূলক জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদর্শনের বিষয়টি শিথিল করা হয়েছে।

 

একটি জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে পরিবারের সর্বোচ্চ চারজনের জন্য টিকিট কেনা ও ভ্রমণ করা যাবে।গত ২০ আগস্ট বাংলাদেশ রেলওয়ের উপপরিচালক মো. খায়রুল কবির স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে ১৮ জোড়া যাত্রীবাহী ট্রেন চালুর বিষয়টি জানানো হয়েছিল।

 

চালু হওয়া ট্রেনগুলোর মধ্যে রয়েছে-ঢাকা-চট্টগাম-সিলেট রুটে পাহাড়িকা/উদয়ন, ঢাকা-কিশোরগঞ্জ-ঢাকা রুটে এগারো সিন্দুর প্রভাতী, ঢাকা-তারাকান্দি-ঢাকা রুটে যমুনা এক্সপ্রেস, চট্টগ্রাম-ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে সোনার বাংলা এক্সপ্রেস, চট্টগ্রাম-ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে চট্টলা এক্সপ্রেস, সান্তাহার-বুড়িমাড়ি-সান্তাহার রুটে করতোয়া এক্সপ্রেস, রাজশাহী-চিলাহাটি-রাজশাহী রুটে বরেন্দ্র এক্সপ্রেস, রাজশাহী-ঢাকা-রাজশাহী রুটে সিল্কসিটি এক্সপ্রেস, খুলনা-রাজশাহী-খুলনা রুটে সাগরদাঁড়ী এক্সপ্রেস, সান্তাহার-দিনাজপুর-সান্তাহার রুটে দোলনচাঁপা এক্সপ্রেস, ঢালারচর-রাজশাহী-ঢালারচর রুটে ঢালারচর এক্সপ্রেস, চট্টগ্রাম-ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে ঢাকা/চট্টগ্রাম মেইল, ঢাকা-দেওয়ানগঞ্জ বাজার-ঢাকা রুটে কমিউটার, ঢাকা-ঝারিয়া ঝাঞ্জাইল-ঢাকা রুটে বলাকা কমিউটার, সান্তাহার-লালমনিহাট-সান্তাহার রুটে বগুড়া কমিউটার, খুলনা-পার্বতীপুর-খুলনা রুটে রকেট এক্সপ্রেস এবং পার্বতীপুর-চিলাহাটি-পার্বতীপুর রুটে চিলাহাটি এক্সপেস।