আজ ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

এক রুপি জরিমানার রায়, অনাদায়ে তিন মাসের জেল

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ আদালত অবমাননা করার কারণে ভারতের আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণকে এক রুপি জরিমানা করল সে দেশের সুপ্রিম কোর্ট। চলতি বছরের ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রারের কাছে সেই অর্থ জমা দিতে হবে।

 

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে এক রুপি জমা দিতে না পারলে ওই আইনজীবীকে তিন মাস কারাগারে থাকতে হবে এবং ওকালতির ওপর তিন বছরের নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে।

 

প্রসঙ্গত, গত ২৭ জুন ভারতের সুপ্রিম কোর্টের বিরুদ্ধে একটি টুইট করেন প্রশান্ত ভূষণ। সেই টুইটে তিনি লেখেন, সরকারিভাবে জরুরি অবস্থা না থাকা সত্ত্বেও গত ছয় বছরে কিভাবে ভারতের গণতন্ত্র ধ্বংস করা হয়েছে, তা দেখার সময় সেই ধ্বংসে ইতিহাসবিদরা সুপ্রিম কোর্টের ভূমিকা বিশেষভাবে চিহ্নিত করে রাখবেন এবং আরো বিশেষ করে ভারতের শেষ চারজন প্রধান বিচারপতির ভূমিকা (চিহ্নিত করবেন)।

 

তার দু’দিন পর ভারতের প্রধান বিচারপতিকে নিয়ে টুইট করেন বিখ্যাত এই আইনজীবী ও সমাজকর্মী। তিনি বলেন, মাস্ক বা হেলমেট না পরেই নাগপুরের রাজভবনের এক বিজেপি নেতার ৫০ লাখ টাকার মোটরসাইকেল চালিয়েছেন ভারতের প্রধান বিচারপতি। সেই সময়, যখন তিনি সুপ্রিম কোর্টকে লকডাউন মোডে রেখে নাগরিকদের বিচার পাওয়ার মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করছেন।

 

এ ঘটনার পর পার হয়ে যায় দুই সপ্তাহ। পরে ভূষণের সেই টুইটকে কেন্দ্র করে আদালত অবমাননার প্রক্রিয়া শুরুর ব্যাপারে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানান মেহেক মাহেশ্বরী নামে একজন আইনজীবী।

 

যদিও পিটিশন দাখিলের আগে নিয়ম মোতাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল কে কে ভেনুগোপালের সম্মতি নেননি মাহেশ্বরী। মাহেশ্বরীর আবেদনের ভিত্তিতে একটি স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের করে ২২ জুলাই আইনজীবী ভূষণকে নোটিশ পাঠায় ভারতের সুপ্রিম কোর্ট।