আজ ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১লা অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ওয়াহিদা খানমের অবস্থা আগের চেয়ে ভালো, কথাও বলেছি

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানমের অবস্থা সংকটাপন্ন। তিনি বর্তমানে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাঁর চিকিৎসার খোঁজখবর নিতে হাসপাতালে গেছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন ও প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব আহমদ কায়কাউস।

 

তাঁকে দেখে এসে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, ওয়াহিদা খানমের সঙ্গে হাসপাতালে কথা বলেছি। এখন তাঁর অবস্থা আগের চেয়ে অনেক ভালো। তবে তাঁর প্রেসারটা আপ-ডাউন করছে। যদিও সাক্ষাৎকারে তাঁর প্রেসার ৮০/১২০-এর মধ্যে ছিল।

 

এর আগে বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে যান জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী। হাসপাতালে সাক্ষাৎ ও খোঁজখবর নেওয়ার পর তিনি বের হয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

 

ফরহাদ হোসেন বলেন, এখন কথা বলতে পারছেন তিনি। তবে তাঁর মাথার বাঁ দিকটা বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ডান পাশের কিছু অংশ প্যারালাইজড অবস্থায় আছে। সব প্যারামিটার যখন ভালো হবে,  প্রেসারটা নরমাল স্টে করলে আশা করা যায়, আজ রাত ৯টায় তাঁর অপারেশন হবে।

 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, তাঁর মাথার কিছু অংশ ব্রেনের ওপরে প্রেসার তৈরি করেছে, সেটা অপারেশনের মাধ্যমে অপসারণ করা গেলে অবস্থার উন্নতি হবে বলে আমাদের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

 

এদিকে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস ও হাসপাতালের প্রধান অধ্যাপক ডা. কাজী দীন মোহাম্মদ জানিয়েছেন, ইউএনও ওয়াহিদা খানমের মাথায় আঘাতের কারণে হাড় ভেঙে সেটা মস্তিষ্কে ঢুকে গেছে। তাঁর এক সাইড অবশ হয়ে আছে। তাঁকে আইসিইউতে রাখা হয়েছে। আমরা একটি অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। রাত ৯টার দিকে এটা করা হতে পারে।

 

বুধবার (০২ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাত ২টার দিকে দুর্বৃত্তরা তাঁর বাসায় ঢুকে ধারালো অস্ত্র ও হাতুড়ি জাতীয় কিছু একটা দিয়ে ইউএনও এবং তাঁর বাবার ওপর হামলা চালায়। ইউএনওর মাথায় গুরুতর আঘাত এবং তাঁর বাবাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করা হয়। পরে আজ বৃহস্পতিবার তাঁকে ঢাকায় আনা হয়।