আজ ১০ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

করোনার রিপোর্ট নেগেটিভ আসলেই বিকেএসপি যাবেন সাকিব

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ আগামী ২৯ অক্টোবর আইসিসির নিষেধাজ্ঞামুক্ত হবেন তিনি। ভক্ত-সমর্থকরা উন্মুখ হয়ে আছেন, কবে আবার ক্রিকেটে ফিরে আসবেন ‘চ্যাম্পিয়ন’ সাকিব।

ধারণা করা হচ্ছে, শ্রীলঙ্কায় আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপেই মাঠে ফিরে আসবেন সাকিব আল হাসান। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের একান্ত ইচ্ছে, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টেই খেলবেন সাকিব।

সে লক্ষ্যেই দীর্ঘ প্রায় চার মাসের বেশি সময় পর দেশে ফিরলেন সাকিব আল হাসান। গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত পৌনে তিনটায় রাজধানীতে পা রেখেছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

এক বছর ক্রিকেটের বাইরে। অনেক দিন ব্যাট ও বল ধরেননি, মাঠে ফেরার আগে আছে নিজেকে তৈরি করার তাড়া; কিন্তু নিষিদ্ধথাকাকালিন সময়ে জাতীয় দলের সান্নিধ্যে যাওয়ারও সুযোগ নেই। যা করার করতে হবে একা একা, নিজ উদ্যোগে।

সাকিব নিজেও তা জানেন। এ কারণেই একা একা অনুশীলনের তাগিদ অনুভব করছেন তিনি। সে লক্ষ্যে নিজেকে আবার তৈরি করতে বিকেএসপিতে নিবিড় অনুশীলনের সিদ্ধান্ত। বিকেএসপিতে তার দুই শিক্ষক নাজমুল আবেদিন ফাহিম আর মোহাম্মদ সালাউদ্দীনের সাথে কথা বলেই তাই তার দেশে ফেরা।

সাকিব দেশে ফেরার মুহূর্ত থেকে একটি কৌতুহলি জিজ্ঞাসা সবার মনে- কবে কখন বিকেএসপি যাবেন তিনি এবং অনুশীলন শুরু করবেন? তিনি কি কোয়ারেন্টাইনে দুই সপ্তাহ ঘরে একা থেকে তারপর প্র্যাকটিস শুরু করবেন?

যদি তাই করেন, তাহলে ১৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকতে হবে ভক্ত-সমর্থকদের। তখন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে মাঠে ফেরা কঠিন হয়ে যাবে।

তাহলে কি করবেন সাকিব? কোয়ারেন্টাইনে চলে যাবেন নাকি কয়েকদিন বিরতির পরই অনুশীলন শুরু করবেন? এ সময়োচিত প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন বিকেএসপির কোচ নাজমুল আবেদিন ফাহিম।

তিনি জানিয়েছেন, সব কিছু ঠিক থাকলে ৫ সেপ্টেম্বর শনিবার বিকেএসপি যাবেন সাকিব এবং সেদিন থেকেই শুরু হবে তার আবার মাঠে ফেরার প্রস্তুতি।

গতকাল বুধবার রাতে জাগো নিউজের সাথে আলাপে নাজমুল আবেদিন ফাহিম জানিয়েছেন, বিকেএসপি যাবার আগে সাকিবকে অবশ্যই করোনা টেস্ট করাতে হবে। সেই টেস্টে নেগেটিভ রিপোর্ট আসলেই কেবল সাকিব যেতে পারবেন বিকেএসপিতে এবং সেখানেই চলবে তার নিবিড় অনুশীলন।

আগে কি কোয়ারেন্টাইনে থেকে এরপর অনুশীলন শুরু করবেন সাকিব? জাগো নিউজকে ফাহিমের জবাব, ‘কোয়ারেন্টাইনে ২ সপ্তাহ কাটলে তো আর সময় থাকবে না। ১৭ আগস্টের আগে ফ্রি হওয়া যাবে না। তখন হাতে সময় মিলবে অনেক কম। দ্বিতীয় টেস্ট বহূদুরে শ্রীলঙ্কার সাথে মাঠে নামাই কঠিন হয়ে যাবে। তাই সাকিব দেশে ফেরার তিন থেকে চার দিন পরই প্র্যাকটিস শুরু করতে হবে। সে লক্ষ্যেই আগামী ৫ সেপ্টেম্বর শনিবার বিকেএসপি আসবে সে। তবে নিয়ম মেনে তাকে আগে করোনা টেস্ট করাতে হবে।’

ফাহিমের কথায় পরিষ্কার আভাস, আজই করোনা টেস্ট করাবেন সাকিব। হয়ত কাল শুক্রবারই রিপোর্ট মিলবে। আর রিপোর্ট নেগেটিভ আসলে পরদিনই বিকেএসপি যাওয়া সম্ভব হবে।

ফাহিম একটি তথ্য দিতে ভোলেননি, তাহলো- বিকেএসপিতে সাকিবের অনুশীলনকালীন সময়টা ‘আইসোলেশনেই’ কাটবে তার। এবং সে ৫ সপ্তাহ একান্তে অনুশীলন করবে।

তার মানে অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত বিকেএসপি থেকে সেখান থেকে আইসিসির নিষেধাজ্ঞামুক্ত হয়ে শ্রীলঙ্কা যাবেন সাকিব। মানে বিকেএসপিতে আবাসিক অনুশীলনকালিন সময়টায় সাকিবকে একাই থাকতে হচ্ছে।