আজ ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

মেসিকে চুক্তি বাড়ানোর প্রস্তাব দিতে চায় বার্সেলোনা

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ ম্যানচেষ্টার সিটির প্রস্তাবনার আলোকে নতুন ক্লজসহ মেসিকে চুক্তি বাড়ানোর প্রস্তাব দিতে পারে বার্সেলোনা। স্থানীয় গণমাধ্যমের রিপোর্টে একথা বলা হয়েছে।

 

আনুমানিক দুই দশক এই ক্লাবে থাকার পর সেখান থেকে চলে যেতে চান আর্জেন্টাইন সুপারস্টার মেসি। ৩৩ বছর বয়সী এই ফুটবল তারকা চান বিনা ট্রান্সফার ফিতে বিদায় নিতে। তবে ভিন্ন মত লা লিগা জায়ান্টদের।

 

বার্সেলোনার ইতিহাসে মেসি হচ্ছেন সেরা খেলোয়াড়। এ পর্যন্ত তিনি কাতালান এই ক্লাবকে এনে দিয়েছেন ১০টি লা লিগা ও চারটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা। সেই মেসি এখন বার্সেলোনা ছাড়তে চান। চুক্তির একটি ধারা মতে তিনি বিনা ট্রান্সফার ফিতেই বার্সা ছাড়তে পারবেন। মৌসুম শেষে ক্লাব ছাড়তে চাইলে তাকে কেউ আটকাতে পারবে না।

 

কিন্তু বার্সার জবাব ভিন্ন। তারা ক্লাবেই রেখে দিতে চান মেসিকে। সে পথে বর্তমানে তাদের সমর্থনে রয়েছে লা লিগা। এরই ধারাবাহিকতায় গত রবিবার অন্য খেলোয়াড়দের সঙ্গে ডাক্তারী পরীক্ষায় যোগ দেননি মেসি।

 

অনুপস্থিত ছিলেন নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যানের অধীনে অনুশীলনে। যেটি বাইরে থেকে দেখে চোখের জল ফেলেছেন এক তরুণ সমর্থক। তারা চায় ২০২২-২৩ মৌসুমের অর্ধেক সময় পর্যন্ত বার্সায় কাটিয়ে দিক মেসি। যখন অনুষ্ঠিত হবে কাতার বিশ্বকাপ।

 

এদিকে নতুন কোথাও গিয়ে চ্যালেঞ্জ গ্রহণের ব্যাপারে প্রত্যায়ী মেসি। এই মুহুর্তে তাকে পেতে একপায়ে দাঁড়িয়ে আছে ম্যানচেষ্টার সিটি। অতীতে সিটি কোচ পেপ গার্দিওলার অধীনে বার্সাতেই চার বছর কাটিয়েছেন মেসি।

 

দুই জনের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ক্লাবটি হয়ে উঠেছিল বিশ্বসেরা। আর্থিক ফেয়ার প্লে ঠিক রেখে মেসিকে ইংল্যান্ডে উড়িয়ে আনতে চান গার্দিওলা। এদিকে ন্যু ক্যাম্পের সভাপতি প্রার্থী টনি ফ্রেক্সার বিশ্বাস মেসি যাবেই। তার পরবর্তী গন্তব্য সিটির ইত্তিহাদ স্টেডিয়াম।

 

তিনি গোল ডট কমকে বলেন, ‘বিভিন্ন পক্ষ থেকে আমি জেনেছি যে, ‘বছরের পর বছর ধরেই একজন থেকে এই বিষয়ে পরিপক্ষ সিদ্ধান্ত পেয়েছেন এই খেলোয়াড়। এটি পরিবর্তন হবার নয়।

 

আমি মনে করিনা পিছিয়ে যাবার কোন সুযোগ আছে। তিনি সিটিতেই যাবেন বলে মনে হচ্ছে। বার্সেলোনায় পেপ গার্দিওলা ও মেসি মিলে অসাধারণ কয়েকটি মৌসুম উপহার দিয়েছে। তারা আবারো এক হতে যাবে এটাই যৌক্তিক।’