আজ ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সারাবিশ্বে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ৯ লাখ ছাড়াল

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: গত ডিসেম্বরে চীনে প্রাদুর্ভাব হওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস এর মধ্যেই দুই শতাধিক দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। সারাবিশ্বেই ভয়াবহ বিপর্যয় ডেকে এনেছে এই ভাইরাস। এদিকে, ইতোমধ্যেই করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ৯ লাখ ছাড়িয়ে গেছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের পরিসংখ্যান বলছে, বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২ কোটি ৭৭ লাখ ৩৮ হাজার ৭০৮। এর মধ্যে মারা গেছে ৯০ লাখ ১ হাজার ৮৬৬ জন। অপরদিকে, ইতোমধ্যেই করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছে ১ কোটি ৯৮ লাখ ৩১ হাজার ৯৯৩ জন।

করোনা সংক্রমণে শীর্ষে থাকা দেশগুলো হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র, ভারত, ব্রাজিল, রাশিয়া, পেরু, কলম্বিয়া, মেক্সিকো, দক্ষিণ আফ্রিকা, স্পেন, আর্জেন্টিনা, চিলি, ইরান, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, বাংলাদেশ, সৌদি আরব এবং পাকিস্তান।

অন্যান্য দেশগুলোতেও সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। তবে আক্রান্ত ও মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের ধারে-কাছে নেই কোনো দেশ। সেখানেই সংক্রমণ ও মৃত্যুর ঘটনা সবচেয়ে বেশি। যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্যের সবগুলোতেই করোনাভাইরাসের প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬৫ লাখ ১৪ হাজার ২৩১। এর মধ্যে মারা গেছে ১ লাখ ৯৪ হাজার ৩২ জন। অপরদিকে ইতোমধ্যেই সুস্থ হয়ে উঠেছে ৩৭ লাখ ৯৬ হাজার ৭৬০ জন।

করোনা সংক্রমণে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪৩ লাখ ৭০ হাজার ১২৮। দেশটিতে কোভিড-১৯ সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৭৩ হাজার ৯২৩ জনের। তবে ইতোমধ্যেই সুস্থ হয়ে উঠেছে ৩৩ লাখ ৯৮ হাজার ৮৪৪ জন।

অপরদিকে, ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৪১ লাখ ৬৫ হাজার ১২৪। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ১ লাখ ২৭ হাজার ৫১৭ জন। এছাড়া সুস্থ হয়ে উঠেছে ৩৩ লাখ ৯৭ হাজার ২৩৪ জন।

রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১০ লাখ ৩৫ হাজার ৭৮৯। এর মধ্যে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১৭ হাজার ৯৯৩ জনের এবং সুস্থ হয়ে উঠেছে ৮ লাখ ৫০ হাজার ৪৯ জন।

লাতিন আমেরিকার দেশ পেরুতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লাখ ৯৬ হাজার ১৯০। এর মধ্যে মারা গেছে ৩০ হাজার ১২৩ জন। ইতোমধ্যেই সুস্থ হয়ে উঠেছে ৫ লাখ ২৯ হাজার ৭৫১ জন।

এদিকে, অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত ট্রায়াল স্থগিত করা হয়েছে। অ্যাস্ট্রেজেনেকা এবং অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ উদ্যোগে করোভাইরাসের এই সম্ভাব্য ভ্যাকসিন তৈরি হয়েছে। সম্প্রতি এই ভ্যাকসিন গ্রহণকারী এক স্বেচ্ছাসেবী অসুস্থ হয়ে পড়ায় কর্তৃপক্ষ জরুরি ভিত্তিতে ভ্যাকসিনে ট্রায়াল স্থগিত রেখেছে।

যুক্তরাজ্যে অক্সফোর্ডের এই ভ্যাকসিন গ্রহণকারী এক স্বেচ্ছাসেবীর দেহে মারাত্মক প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।এই ঘটনাকে ব্যাখ্যাযোগ্য নয় এমন অসুস্থতা হিসেবে উল্লেখ করে রুটিনমাফিক ভ্যাকসিনের ট্রায়াল স্থগিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে অ্যাস্ট্রেজেনেকা।

পুরো বিশ্বেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন নিয়ে আগ্রহের শেষ নেই। প্রথম থেকেই এই ভ্যাকসিনকে সবচেয়ে নিরাপদ বলে আসছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এমনকি এখন পর্যন্ত করোনার যতগুলো সম্ভাব্য ভ্যাকসিন তৈরি হয়েছে সবগুলোর মধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাবে এগিয়ে আছে অক্সফোর্ড।

আশা করা হচ্ছিল যে প্রথম এবং দ্বিতীয় ধাপের ট্রায়াল শেষে তৃতীয় ধাপও সফলভাবে পার করে বাজারে আসবে করোনার এই ভ্যাকসিন। কয়েক সপ্তাহ আগেই তৃতীয় ধাপের ট্রায়াল শুরু করেছে অক্সফোর্ডের এই ভ্যাকসিন।