আজ ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

শিশু নোহার মৃত্যু : বাবা বলছে আত্মহত্যা, মায়ের দাবি হত্যা!

প্রথমবার্তা,  বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার বাগধা ইউনিয়নের খাজুরিয়া গ্রামে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী নুসরাত জাহান নোহা আত্মহত্যা করেছে মানতে নারাজ তার মা। মানছে না গ্রামবাসীও।

 

নুসরাতের নানি তাসলিমার অভিযোগ, সম্পত্তির জন্য সতমা ঝুমুর বেগম পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে আত্মহত্যা বলেছে। গ্রামবাসীর কাছে আত্মহত্যার বিষয়টি রহস্যজনক। তারা অভিযোগ করেন শিশুটিকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। সঠিক তদন্ত সাপেক্ষে আসল রহস্য উদঘাটনের দাবি জানান।

 

নুসরাত জাহানের বাবা মো. সুমন মিয়া (৩৫) মামলায় উল্লেখ করেছেন, তার সন্তান পরীক্ষায় খারাপ রেজাল্ট করায় শিক্ষক তাকে গালিগালাজ ও বেত্রাঘাত করেন। সেই অপমানে নুসরাত আত্যহত্যা করে।

 

স্কুলছাত্রী নুসরাত জাহানের জন্মদাতা মা তানিয়া আক্তার (৩০) বলেন, আমার মেয়ে নুসরাত জাহান আত্মহত্যা করে নাই। আমার মেয়েকে তার সতমা ঝুমুর বেগম ও বাবা পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রেখে আত্মহত্যা বলে চালিয়েছে।

 

নুসরাতের নানি তাসলিমা বেগম (৫০) অভিযোগ করে বলেন, গত রবিবার নুসরাতের দাদা আব্দুর রহিম তার বাড়ি এসে বলেন, তিনি (দাদা) তার জায়গাজমি কিছুদিনের মধ্যে নুসরাতের নামে দলিল করে দিবেন। এ কথা তিনি তার ছেলে সুমনকে ও নুসরাতের সতমা ঝুমুরকে জানিয়ে দিয়েছেন। নুসরাত আত্মহত্যা করেনি, সম্পত্তি থেকে তাকে বঞ্চিত করতে সতমা ঝুমুর বেগম পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে আত্মহত্যা বলেছে।

 

নুসরাতের দাদা আব্দুল রহিম মিয়া বলেন, নুসরাতের নামে আমার সম্পত্তি লিখে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। রবিবার সকালে ওই বাড়ি (নুসরাতের নানি বাড়ি) গিয়ে একথা বলে ছিলাম। নুসরাতের মৃত্যুর কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, আল্লাহ সব দেখেন, তিনি বিচার করবেন।

 

নুসরাতের সতমা ঝুমুর বলেন, নুসরাত আমাদের অজান্তে গলায় ফাঁসদিয়ে আত্মহত্যা করেছে। নুসরাত একটা ভালো মেয়ে ছিলো।বাগধা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম বাবুল ভাট্রি বলেন, ওই টুকু শিশু আত্মহত্যা করতে পারে বিষয়টি রহস্যনজক।

 

আগৈলঝাড়া থানার ওসি মো. আফজাল হোসেন বলেন, ঘটনায় শিক্ষকের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। আমারা আসামি গ্রেপ্তারে অভিজান চালাচ্ছি। মামলা তদন্তে ও ডাক্তারি রিপোর্টে সকল রহস্য বেরিয়ে আসবে। শিশু নুসরাতের মৃত্যুর সাথে যারা জরিত তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।