আজ ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্কে ‘সেতুবন্ধন’ হতে পারে কর্তারপুর করিডোর

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: ডেরা বাবা নানক-কর্তারপুর করিডোর প্রকল্পের পাকিস্তান অংশটি নির্মাণের জন্য ভারত ও পাকিস্তান প্রতিনিধিদের একটি যৌথ সমীক্ষা হয়েছে। গত ২৮ আগস্ট এ সমীক্ষা হয়। এই করিডোরটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্কের নতুন মাত্রা সুচিত হবে।

 

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআই জানায়, ভারতের জাতীয় মহাসড়ক কর্তৃপক্ষ চিঠিতে জানায়, বিএসএফকে অবহিত করা হয়েছে যে, পাকিস্তান তাদের অংশে একটি সেতু নির্মাণ করতে চায়, যা ভারতের সেতুর সঙ্গে যুক্ত হবে এবং এই প্রকল্পের সমীক্ষা চালানোর জন্য ৭ জন প্রকৌশলীর একটি সমীক্ষা দল ভারতের অংশের সেতুটি পরিদর্শন করবে। পাকিস্তানের অনুরোধ মঞ্জুর করা হয়েছে বলেও চিঠিতে জানানো হয়।

 

৪ দশমিক ৭ কিলোমিটার দীর্ঘ কর্তারপুর সাহিব করিডোর, ভারতের পাঞ্জাবের ডেরা বাবা নানক সাহিবের সঙ্গে পাকিস্তানের পাঞ্জাবের নারওয়াল জেলার কর্তারপুরের গুরুদ্বার দরবার সাহিবকে সংযোগ করেছে। গত বছর এটি উদ্বোধন করা হয়। তবে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হলে করিডোরটি বন্ধ করে দেয় ভারত সরকার।

 

কথিত আছে, কর্তারপুরেই জীবনের শেষ ১৮ বছর কাটান শিখ ধর্মের প্রবর্তক গুরু ‌নানক। এ করিডোরটির সাহায্যে ভিসা ছাড়াই সেখানে যেতে পারবেন ভারতীয় তীর্থযাত্রীরা। শুধু ওই তীর্থযাত্রীদের নিজেদের পাসপোর্ট বহন করতে হবে এবং কর্তারপুরে দরবার সাহিবের গুরুদ্বার দেখার জন্য একটি অনুমতি নিতে হবে।

 

এই করিডোরটি তৈরির ফলে গুরুদ্বার দরবার সাহিব (পাকিস্তানের কর্তারপুর) এখন ভারতের শিখ তীর্থযাত্রীদের কাছে অনেকটাই ধরাছোঁয়ার মধ্যে এসে গেল। উভয় দেশের মধ্যে সম্পর্কের সেতুবন্ধন হতে পারে এই করিডোর।

সূত্র : এএনআই।