আজ ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

চার দেশে জেনারেল অসীম বাজওয়া পরিবারের সম্পদের পাহাড়

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:  পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিশেষ সহকারী ও চায়না-পাকিস্তান ইকনমিক করিডোর অথরিটির চেয়ারম্যান অবসরপ্রাপ্ত থ্রি স্টার জেনারেল অসীম সালিম বাজওয়ার বিরুদ্ধে বড়সড় দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ চার দেশে বাজওয়া পরিবারের বিপুল সম্পদ রয়েছে বলে জানা গেছে।

 

জেনারেল বাজওয়ার ক্ষমতার উত্থানের সাথে সাথে তার পরিবারের ব্যবসায়িক সাম্রাজ্যের বিপুল বৃদ্ধির যোগ রয়েছে। ২০০২ সালে অসীম বাজওয়ার ছোট ভাইয়েরা তাঁদের প্রথম পারিবারিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ‘পাপা জনস পিজ্জা’ রেস্তোঁরাটি খোলেন। সেই বছরই বাজওয়া লেফটন্যান্ট কর্নেল হিসেবে সামরিক স্বৈরশাসক পারভেজ মোশাররফের ব্যক্তিগত স্টাফে কাজ শুরু করেন।

 

অসীম বাজওয়ার ছোট ভাই নদিম বাজওয়া (৫৩), যিনি পিৎজা রেস্তোঁরার ডেলিভারি ড্রাইভার হিসাবে কাজ শুরু করেছিলেন। বর্তমানে অসীম বাজওয়ার স্ত্রী, ভাই ও ছেলেরা এখন একটি বিশাল ব্যবসায়িক সাম্রাজ্যের মালিক। যুক্তরাষ্ট্রসহ চারটি দেশে পরিবারটির ৯৯টি আলাদা কম্পানি রয়েছে। এর মধ্যে পিৎজা ফ্র্যাঞ্চাইজির অধীনে রয়েছে ১৩৩টি রেস্তোঁরা। মোট সম্পদের পরিমাণ ৩৯ দশমিক ৯ মিলিয়ন ডলার। ৯৯টি কম্পানির মধ্যে ৬৬টি মূল সংস্থা। এছাড়া ৩৩ টি সংস্থার কয়েকটি করে শাখা রয়েছে। পাঁচটি সংস্থা বিলুপ্ত হয়েছে।

 

বাজওয়া পরিবারের সংস্থাগুলো যুক্তরাষ্ট্রে তাঁদের ব্যবসা সম্প্রসারণে আনুমানিক ৫২.২ মিলিয়ন ডলার এবং সম্পত্তি কেনার পেছনে ১৪.৫ মিলিয়ন ডলার ব্যয় করেছে। বিভিন্ন কম্পানির মাধ্যমে বাজওয়া পরিবারের ব্যবসায়িক নাম ‘বাজকো গ্রুপ’।

 

আসীম বাজওয়ার ছেলেরা ২০১৫ সালে বাজকো গ্রুপের সংস্থাগুলোতে যোগদান করেছেন। জেনারেল বাজওয়া আইএসপিআরের মহাপরিচালক এবং সাউদার্ন কমান্ডের প্রধান নিযুক্ত হওয়ার পর তিনি পাকিস্তান এবং যুক্তরাষ্ট্রে বাজকো গ্রুপের নতুন নতুন সিস্টার প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা শুরু করেছিলেন।

 

অসীম বাজওয়ার স্ত্রী প্রথম থেকেই সমস্ত বিদেশী ব্যবসায়ের অংশীদার ছিলেন। অসীমের স্ত্রী ফারুখ জেবা বর্তমানে ৮৫ টি সংস্থার অংশীদার। এরমধ্যে বিদেশী সংস্থা রয়েছে ৮২টি (যুক্তরাষ্ট্রে ৭১, সংযুক্ত আরব আমিরাতের সাতটি এবং কানাডার চারটি)। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট গভর্মেন্টসের রেকর্ড এবং সংস্থাগুলোর সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য রেকর্ডগুলো পর্যালোচনা করে দেখা যায় যে আমেরিকায় রিয়েল স্টেট খাত, দুটি শপিংমলসহ ১৩টি বাণিজ্যিক সংস্থার মালিকানা রয়েছে অসীম বাজওয়ার স্ত্রীর। ফারুখ জেবার যৌথ মালিকানাধীন এই সংস্থাগুলোর আনুমানিক সম্পত্তি এবং ব্যবসায়িক সম্পদের পরিমাণ ৫২.৭ মিলিয়ন ডলার।

 

গত জুনে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিশেষ সহকারী হিসেবে যুক্ত হওয়ার সময় জেনারেল বাজওয়া পরিবারের সম্পত্তি ও ঋণের যে লিখিত বিবরণ দেন সেখানে স্ত্রীর নামে মাত্র ১৮ হাজার ৪৬৮ ডলার বিনিয়োগ রয়েছে বলে ঘোষণা করেন। সেখানে অসীম স্পষ্টতই ঘোষণা দেন যে তাঁর ও স্ত্রীর নামে পাকিস্তানের বাইরে কোন স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি নেই। পাকিস্তানের বাইরে তাঁর ও স্ত্রীর নামে কোন ব্যবসায়িক বিনিয়োগও নেই বলে ঘোষণাপত্রে অসীম জানিয়েছিলেন।

 

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের খুবই ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডোরের চেয়ারম্যান অসীম বাজওয়ার বিভিন্ন দেশে বিপুল সম্পত্তির এই রিপোর্ট সামনে আসার পর পাকিস্তান জুড়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

সূত্র : ফ্যাক্ট ফোকাস।