আজ ৮ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৪শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

জাজিরায় আবারও শতাধিক ককটেল বিস্ফোরণ, আহত ১৩

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বিলাশপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. কুদ্দুস বেপারীর বাড়িতে জলিল মাদবরের লোকজন পুনরায় হামলার চালানোর অভিযোগ উঠেছে।

 

আজ সোমবার সকাল ৭টার দিকে বিলাশপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. কুদ্দুস বেপারীর বাড়িতে বিলাশপুর ইউনিয়নের জলিল মাদবরের নেত্তৃত্বে প্রায় শতাধিক লোকজন গিয়ে পুনরায় বোমা বিস্ফোরণ ঘটায় ও বাড়ি ঘর ভাঙচুর করে বলে অভিযোগ উঠেছে।

 

এতে উভয় পক্ষের ১৩ জন আহত হয়। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেসহ শরীয়তপুর সদর ও ঢাকা মেডিক্যালে ভর্তি করা হয়েছে।আহতদের মধ্যে রিপন সরদার (২০) মন্তা বেপারীকে (৪৫) ঢাকা মেডিক্যালে, তোতা খা (৪৫) রাব্বিকে (২০) শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ও রাজন বেপারী (২৫) জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

 

এদিকে গতকাল রাত ৯টার সময় ককটেলের আঘাতে বিলাশপুর ইউনিয়নের কাজিয়ার চর আলিমুদ্দিন মাবরের কান্দির মেহের আলী মাদবর (৬০) গুরুতর আহত অবস্থায় জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা রের্ফাড করা হয়েছে।

 

বাবু মাদবর (৩৫) রফিক মাদবর (৪০) কবির মাদবর (৪০) ফজলুল রহমান মাদবর (৩৭) এদেরকেও ঢাকা মেডিক্যালে ভর্তি করা হয়েছে। খবির মাদবর (৭৫) ও সবুজ মাদবর (২২) জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

 

জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নেওয়া খবির মাদবর (৭০) কালের কণ্ঠকে বলেন, আমরা গরমের কারণে কালাইমাদবরের বাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে বসেছিলাম আর হঠাৎ করে রফিক মাদবর, কাদির মাদবর, সেলিম মাদবর, বাবু মাদবর, রাকিব মাদবর, খবির মাদবর, কবির মাদবর, ইদ্রিস মুন্সী, কুদ্দুস মুসি, সোহাগ মুন্সি, হাসান মুন্সি, দেলোয়ার মুন্সি কামাল খলিফা, জামাল খলিফা, নুরু বেপারী, মেহেদী বেপারী, আমির হাওলাদারসহ আরো অনেকে মোটরসাইকেল ও অটোরিকসা দিয়ে এসে অতর্কিত হামলা চালায়। আমাদেরকে পরে পুলিশ গিয়ে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

 

ককলটেলের আঘাতে আহত রাজন বেপারী (২৫) চিকিৎসা নিচ্ছে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে। রাজন কালের কণ্ঠকে বলেন, আমি সকালবেলা টিউবওয়েলে গেছি। হঠাৎ আমার গায়ে কারা যেন বোম মারছে, আমি পড়ে গেছি।

 

এ ঘটনায় দুজনকে আটক করা হয়েছে। তারা হলেন হারুন খলিফা (৬০) ও আজিজ( ৫০)। তাদেরকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জাজিরা থানা পুলিশ।

 

এ বিষয় সাবেক চেয়ারম্যান কুদ্দুস বেপারী প্রথমবার্তাকে বলেন, আমার বাড়িতে আবারও হামলা চালিয়েছে জলিল মাদবর। আমাদের লোকজনকে এলাকা থেকে তারিয়ে দেওয়া হয়েছে। আমরা খুব আতঙ্কে আছি।

 

আমাদেরকে এমপি সাহেব বলেছেন তোমরা কোনো মারামারি করবা না। এলাকা শান্ত রাখো। আমি বিষয়টা দেখব। তাই আমি এমপি সাহেবের নির্দেশনা মোতাবেক কোনো প্রকার মারামারি করছি না।

 

এ বিষয় জানতে গিয়ে বারবার মুটোফোনে চেষ্টা করেও জলিল মাদবরকে পাওয়া যায়নি।জাজিরা থানার ওসি আজহারুল হক কালের কণ্ঠকে বলেন, বিলাশপুরে আবারও সংঘর্ষ হয়েছে। বেশ কিছু ককটেল বিস্ফোরণ হয়েছে। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন আছে।