আজ ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সঠিক নিয়মে চুল পরিষ্কার করার নিয়্ম জেনে নিন

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: কমবেশি সবাই চুল ঝরা সমস্যায় ভোগেন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ সমস্যা দূর করতে পুষ্টিকর খাদ্যাভাসের পাশাপাশি সঠিক পদ্ধতি মেনে চুল ধোয়াটা জরুরি।

 

তাদের ভাষায়, প্রতি সপ্তাহে কমপক্ষে দুবার করে চুল শ্যাম্পু দিয়ে পরিষ্কার করা উচিত। তবে নিয়মিত যদি বের হতে হয় এবং চুলে ধূলাবালি ও রোদ লাগে তাহলে একদিন পর পরই চুল পরিষ্কার করা প্রয়োজন।

 

এছাড়াও চুল পরিষ্কার ও যত্নের ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম মানা জরুরি। যেমন-

১. চুল শুকানোর জন্য অনেকে ড্রায়ার ব্যবহার করেন। মনে রাখবেন, দিনের পর দিন এটি ব্যবহার করলে চুলের স্বাস্থ্য খারাপ হবে।

 

২. অনেকে রাতে গোসল করেন। এতে চুল দীর্ঘ সময় স্যাঁতসেঁতে থাকে। এছাড়া চুল ভেজা অবস্থায় ঘুমাতে যাওয়া স্বাস্থ্য এবং চুলের গুণমান উভয়েরই ক্ষতি করতে পারে। চুল শুকিয়ে যাওয়ার পরই চুল আঁচরানোর প্রয়োজন আছে। এরপর চুল বেঁধে তারপর বিছানায় শুতে যান।

 

আরেকটি বিষয় মনে রাখা দরকার, রাতে চুল ধোয়া সবার চুলের ধরণের জন্য উপযুক্ত নাও হতে পারে। চুল বা মাথার ত্বক যদি দ্রুত তৈলাক্ত এবং চিটচিটে হয় তবে রাতে ভেজালে ত্বক আরও তৈলাক্ত হয়ে উঠবে। কারণ ত্বক থেকে রাতের বেলা তেল নিঃসরণ করে। যা চুলের স্থিতিস্থাপকতা হ্রাস করতে পারে এবং খুশকি সৃষ্টি করতে পারে। এতে চুলও ঝরে।

 

৩. সকালে চুল পরিষ্কার করলে প্রাকৃতিকভাবে শুকানোর জন্য পর্যাপ্ত সময় দিতে পারবেন। কখন চুল ধোবেন সেটা নিয়ে অনেকেই বিভ্রান্ত থাকে। মনে রাখবেন, প্রতিটি চুলের ধরণ আলাদা। সপ্তাহে যদি তিনবার চুলে শ্যাম্পু করেন তাহলে সকালে এবং রাতের মধ্যে সময়ের পরিবর্তন করে দেখতে পারেন কোন সময় আপনার জন্য যথাযথ হচ্ছে।

 

মনে রাখবেন, চুল ঝরে পরা আটকাতে এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বেশিভাগ ক্ষেত্রে দেখা গেছে, সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর চুল ধুয়ে ফেলা উপযুক্ত। এছাড়া সন্ধ্যায় বা রাতের খাবারের আগে আগে চুল ধুতে পারেন। এতে খাওয়া কাজ সেরে শুতে যাওয়ার আগে চুল শুকিয়ে যাবে। কিন্তু যদি চুল ঘন, লম্বা চুল হয় তাহলে সকালেই তা পরিষ্কার করাই উচিত।