আজ ১০ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ভারতকে ১০ কোটি ডোজ করোনা টিকা দেবে রাশিয়া

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: রাশিয়ার তৈরি করোনাভাইরাস ভ্যাকসিনের ১০ কোটি ডোজ পেতে চলেছে ভারত। বুধবার রাশিয়ান ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড (আরডিআইএফ) জানিয়েছে, ভারতে স্পুটনিক-৫ টিকার ক্লিনিকাল ট্রায়ালে সহায়তা এবং বণ্টনে দেশটির ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা ডক্টর রেড্ডি ল্যাবরেটরির সঙ্গে চুক্তি করা হয়েছে।

 

আরডিআইএফের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘নিয়ন্ত্রক (সংস্থার) অনুমোদনের পর ডক্টর রেড্ডিকে ১০০ মিলিয়ন টিকার (১০ কোটি) ডোজ দেবে আরডিআইএফ। করোনাভাইরাস মহামারী মোকাবেলায় স্পুটনিক ৫ টিকার ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চলছে। যা ভালো মতো গবেষণা চালানো অ্যাডেনোভাইরাল ভেক্টর প্ল্য়াটফর্মের উপর ভিত্তি করে তৈরি। সুরক্ষাও প্রমাণিত হয়েছে। ভারতে সফল ট্রায়াল এবং নিয়ন্ত্রক সংস্থার দ্বারা নথিভুক্তির ভিত্তিতে ২০২০ সালের শেষের দিকে টিকা পাঠানো শুরু হতে পারে।’

 

যৌথভাবে স্পুটনিক-৫ টিকা তৈরি এবং উৎপাদন-সহ একটি সম্ভাব্য টিকা তৈরির ক্ষেত্রে পারস্পরিক সহযোগিতার বিষয়ে গত কয়েক সপ্তাহে ভারতীয় কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত নিকোলাই কুদাশেভ।

 

নাম গোপন রাখার শর্তে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, টিকা নিয়ে সহযোগিতার জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে পদ্ধতির বিষয়েও জানিয়েছে রাশিয়া। তবে সে বিষয়ে এখনও কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি নয়াদিল্লি।

 

গত সপ্তাহে মস্কোয় সাংহাই কো-অপারেশন অর্গাইজেশন (এসসিও) ভুক্ত দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকেও টিকার বিষয়ে আলোচনা হয়েছিল বলে জানা গেছে।

 

বিবৃতিতে আরডিআইএফ জানিয়েছে, ‘কভিড ১৯ মহামারিতে সবচেয়ে মারাত্মকভাবে প্রভাবিত দেশগুলোর মধ্যে আছে ভারত। আমাদের বিশ্বাস, ভারতকে কভিড ১৯-এর বিরুদ্ধে যুদ্ধে সুরক্ষিত এবং বৈজ্ঞানিকভাবে বৈধ বিকল্প দেবে আমাদের অ্যাডিনোভাইরাস ডুয়াল ভাইরাস প্ল্যাটফর্ম।’

 

ডক্টর রেড্ডির কো-চেয়ারম্যান ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর জি ভি প্রসাদ জানান, ‘প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ের ফলাফলে আশা দেখা গেছে এবং ভারতীয় নিয়ন্ত্রকদের প্রয়োজনীয়তা পূরণে ভারতে তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল করব আমরা।’সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস।